বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > রাজ্য সরকারকে চিঠি দিল নির্বাচন কমিশন, পাল্টা চিঠিতে উপনির্বাচন চাইল সরকার
নির্বাচন কমিশনের দফতর। ফাইল ছবি। সৌজন্যে–এএনআই।
নির্বাচন কমিশনের দফতর। ফাইল ছবি। সৌজন্যে–এএনআই।

রাজ্য সরকারকে চিঠি দিল নির্বাচন কমিশন, পাল্টা চিঠিতে উপনির্বাচন চাইল সরকার

  • কমিশনের চিঠির প্রেক্ষিতে পালটা চিঠি দিয়ে রাজ্য সরকারও জানিয়ে দিয়েছে, নির্বাচন কমিশন যেন উপনির্বাচনের বিষয়টি নিয়ে চিন্তাভাবনা শুরু করে।

আজ শুরু হয়েছে বিধানসভার বাজেট অধিবেশন। আর তার মধ্যেই উপনির্বাচনের জল্পনা দেখা গেল। সূত্রের খবর, শুক্রবার নির্বাচন কমিশনের পক্ষ থেকে রাজ্য সরকারকে একটি চিঠি পাঠানো হয়েছে। নির্বাচন কমিশন জানতে চেয়েছে রাজ্যসভার দু’টি আসনে নির্বাচনের আয়োজন করা সম্ভব কি না। কমিশনের চিঠির প্রেক্ষিতে পালটা চিঠি দিয়ে রাজ্য সরকারও জানিয়ে দিয়েছে, নির্বাচন কমিশন যেন উপনির্বাচনের বিষয়টি নিয়ে চিন্তাভাবনা শুরু করে।

একুশের নির্বাচনে ২৯৪টি আসনের মধ্যে ২৯২টি আসনের ফলপ্রকাশ হয়েছিল। কারণ নির্বাচনের আগেই দুই প্রার্থীর মৃত্যু হয়। সামশেরগঞ্জ এবং জঙ্গিপুর আসনে নির্বাচন হয়নি। আবার নির্বাচনের ফলপ্রকাশের আগেই মৃত্যু হয় খড়দহের তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থীর। ফলপ্রকাশের পর বিজেপি বিধায়ক পদ ছাড়েন নিশীথ প্রামাণিক এবং জগন্নাথ সরকার। এমনকী ভবানীপুর আসনটি ছেড়ে দেন শোভনদেব চট্টোপাধ্যায়। সুতরাং সবমিলিয়ে ৭টি বিধানসভা আসনে উপনির্বাচন হওয়ার কথা রয়েছে।

জানা গিয়েছে, রাজ্যসভার দু’টি আসনে নির্বাচন নিয়ে রাজ্য সরকারের কাছে মতামত জানতে চাওয়া হয়েছিল। তাতে সায় দিয়েছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকার। তবে রাজ্যের করোনাভাইরাস পরিস্থিতি অনেকটা স্বাভাবিক হয়ে আসায় দ্রুত উপনির্বাচনের প্রস্তুতি নেওয়ার কথাও উল্লেখ করে চিঠি দেওয়া হযেছে নির্বাচন কমিশনকে। এবার নির্বাচন কমিশন কী সিদ্ধান্ত নেয় সেটাই দেখার।

বন্ধ করুন