বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > 'পাশের জেলায় প্রচার নয়', উপনির্বাচনে কোভিড বিধি ভঙ্গে কড়া নির্বাচন কমিশন
প্রতীকী ছবি  (HT_PRINT)
প্রতীকী ছবি  (HT_PRINT)

'পাশের জেলায় প্রচার নয়', উপনির্বাচনে কোভিড বিধি ভঙ্গে কড়া নির্বাচন কমিশন

  • কোভিড প্রটোকল লঙ্ঘন করলে প্রচারে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হবে বলে বিজ্ঞপ্তি জারি করল জাতীয় নির্বাচন কমিশন। 

ভারতীয় নির্বাচন কমিশন রাজনৈতিক দল ও প্রার্থীদের সতর্ক করে দিল যাতে ভোটমুখী আসনের পার্শ্ববর্তী এলাকায় প্রচার চালিয়ে নির্বাচন বিধি ভাঙা না হয়। উল্লেখ্য, আগামী ৩০ অক্টোবর রাজ্যের চার আসন ছাড়াও দেশজুড়ে বহু বিধানসভা ও লোকসভা আসনে উপনির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। উপনির্বাচনের আসনগুলির কাছাকাছি এলাকায় ভোট-সংক্রান্ত কার্যক্রম আয়োজন যাতে না করা হয়, সেই সংক্রান্ত নির্দেশিকা জারি করেছে নির্বাচন কমিশন।

নির্বাচন কমিশনের এক বিবৃতিতে বলা হয়, 'কমিশনের নজরে এসেছে যে কিছু রাজনৈতিক দল/প্রার্থী জেলা/নির্বাচনী এলাকা সংলগ্ন এলাকায় নির্বাচনী প্রচারের কার্যক্রম পরিচালনা করছে। এই ব্যাপারে সকল রাজনৈতিক দল/প্রার্থীদের নির্দেশ দেওয়া হচ্ছে যাতে উপনির্বাচনের সাথে সরাসরি সম্পর্কিত কোনও রাজনৈতিক কর্মকাণ্ড পার্শ্ববর্তী এলাকায় সংগঠিত না করা হয়।এমনকি যেখানে ভোটগ্রহণ হবে তার পাশের জেলাতেও যাতে ভোট প্রচার সংক্রান্ত কোনও প্রচার না চালানো হয়। সংশ্লিষ্ট জেলা নির্বাচন কর্মকর্তারা নিশ্চিত করবেন যাতে আদর্শ আচরণবিধি ভঙ্গ না হয় এবং প্রচারে সামাজিক দূরত্ব বিধি সহ অন্যান্য করোনা বিধি সম্পর্কিত নির্দেশিকা মানা হয়।'

দেশ জু়ড়ে তিনটি লোকসভা এবং ৩০টি বিধানসভা আসনে উপনির্বাচন হচ্ছে। ভারতীয় নির্বাচন কমিশন বলেছে, যারা কোভিড প্রটোকল লঙ্ঘন করেছে তাদের প্রচারে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হবে। এদিকে উপনির্বাচন যত এগিয়ে আসছে ততই এই চার কেন্দ্রে শান্তি ও নিরাপত্তা বজায় রাখতে কোমর বেঁধেছে নির্বাচন কমিশন। এর জন্য রাজ্যের চার কেন্দ্রের উপনির্বাচনে মোতায়েন করা হয়েছে মোট ৮০ কোম্পানি কেন্দ্রীয় বাহিনী।

জানা গিয়েছে,মোট ৮০ কোম্পানি কেন্দ্রীয় বাহিনীর মধ্যে সব চেয়ে বেশি বাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে দিনহাটায়। ২৪ কোম্পানি বাহিনী মোতায়েন করা হচ্ছে এই কেন্দ্রে। শান্তিপুর কেন্দ্রে থাকছে ১৯ কোম্পানি, খড়দহ'তে থাকছে ১৭ কোম্পানি ও গোসাবায় থাকছে ২০ কোম্পানি বাহিনী।

বন্ধ করুন