বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > ‘অ্যাজিথ্রোমাইসিনের প্রয়োগ অযৌক্তিক’, কোভিড চিকিৎসায় বদল আনার আবেদন বিশেষজ্ঞদের
ফাইল ছবি
ফাইল ছবি

‘অ্যাজিথ্রোমাইসিনের প্রয়োগ অযৌক্তিক’, কোভিড চিকিৎসায় বদল আনার আবেদন বিশেষজ্ঞদের

  • করোনা ঠেকাতে প্রমাণ ভিত্তিক প্রতিক্রিয়ার প্রয়োজনের উপর জোর দিতে বলে সব রাজ্য এবং কেন্দ্রের কাছে আবেদন জানিয়েছেন এই চিকিত্সকরা।

ভারতে করোনা বর্তমান ঢেউয়ের প্রেক্ষিতে জরুরি ভিত্তিতে পদক্ষেপ করা উচিত। দেশ জুড়ে ৩০ জনেরও বেশি চিকিত্সক এবং বিশেষজ্ঞদের একটি দল এই দাবি তুলেছেন। করোনা ঠেকাতে প্রমাণ ভিত্তিক প্রতিক্রিয়ার প্রয়োজনের উপর জোর দিতে বলে সব রাজ্য এবং কেন্দ্রের কাছে আবেদন জানিয়েছেন এই চিকিত্সকরা।

সমস্ত রাজ্য এবং কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রককে ইন্ডিয়ান মেডিক্যাল অ্যাসোসিয়েশন এবং সমস্ত চিকিত্সকদের কাছে উক্ত বিশেষজ্ঞরা আবেদন জানিয়েছেন, কোভিডের ক্লিনিকাল পরিচালনার জন্য অনুপযুক্ত ওষুধ এবং ডায়াগনস্টিকগুলির ব্যবহার বন্ধ করা হোক এবং এর জন্য কর্তৃপক্ষকে হস্তক্ষেপ করার আহ্বান জানিয়েছেন তাঁরা।

এই চিকিত্সক এবং বিশেষজ্ঞদের সাক্ষরিত চিঠিতে লেখা হয়, ‘এই অভিনব রোগের প্রাদুর্ভাবের মধ্যে এখনও অনেক অনিশ্চয়তা অব্যাহত রয়েছে। তবে এখন কোভিড নিয়ে অনেক উচ্চ-মানের বৈজ্ঞানিক গবেষণা হয়েছে। কোভিডের ক্লিনিকাল ব্যবস্থাপনার বিষয়ে দিকনির্দেশনা প্রদান করে এই সব গবেষণা। এই সংক্রান্ত গবেষণা থেকে তথ্য প্রমাণ খতিয়ে দেখে আমাদের পদক্ষেপ করা উচিত। ২০২১ সালের বিপর্যয় ও ভুল থেকে শিক্ষা নিতে হবে আমাদের। যাতে ২০২২ সালে সেই পুনরাবৃত্তি না হয়।’

বিশেষজ্ঞরা দাবি করেছেন, চিকিৎসকরা অযৌক্তিক ওষুধ লিখে দিচ্ছেন। চিকিত্সকরা বলেন যে কোভিডের চিকিত্সার জন্য ভিটামিন সংমিশ্রণ, অ্যাজিথ্রোমাইসিন, ডক্সিসাইক্লিন, হাইড্রোক্সিক্লোরোকুইন, ফ্যাভিপিরাভির এবং আইভারমেকটিনের প্রয়োগ অযৌক্তিক। পাশাপাশি বিশেষজ্ঞরা আরও বলেন যে এখনও অকারণে বহু রোগী হাসপাতালে ভর্তি হচ্ছেন। এই বিষয়টি বন্ধ করারও আবেদন জানান বিশেষজ্ঞরা। বিশেষজ্ঞরা নিজেদের বিবৃতিতে বলেন, ‘গত দুই বছর ধরে এই অতিমারী চলছে। এখন এই ভাইরাসের চিকিত্সায় অকারণ সব অনুশীলন বাদ দেওয়ার সময় এসেছে।’

বন্ধ করুন