বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > ঋণ দুর্নীতি কেসে জামিন পেলেন SBI-এর প্রাক্তন চেয়ারম্যান প্রতীপ চৌধুরী
ফাইল ছবি : মিন্ট (MINT_PRINT)
ফাইল ছবি : মিন্ট (MINT_PRINT)

ঋণ দুর্নীতি কেসে জামিন পেলেন SBI-এর প্রাক্তন চেয়ারম্যান প্রতীপ চৌধুরী

  • ২৪ কোটি টাকার বকেয়া ঋণের জন্য এক সংস্থার প্রায় ২০০ কোটি টাকার সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করে এসবিআই। পরে সেই সম্পত্তি অ্যালকেমিস্ট গ্রুপের এক সংস্থাকে মাত্র ২৫ কোটি টাকায় বিক্রি করা হয়। এক্ষেত্রে উল্লেখযোগ্য, অ্যালকেমিস্ট গ্রুপের সেই সংস্থাতেই অবসরের পরে যোগ দেন প্রতীপ চৌধুরি। সেখানে বোর্ড সদস্য হন তিনি।

জামিন পেলেন SBI-এর প্রাক্তন চেয়ারম্যান প্রতীপ চৌধুরী। মঙ্গলবার জয়সলমীর আদালত প্রাক্তন ব্যাঙ্কারকে জামিন দেয়। বিপুল অঙ্কের ঋণ কেলেঙ্কারিতে জড়িত থাকার অভিযোগ তাঁর বিরুদ্ধে। গত ৩১ অক্টোবর তাঁকে গ্রেফতার করা হয়। গত ১ নভেম্বর তাঁকে ১৪ দিনের বিচারবিভাগীয় হেফাজতে পাঠানো হয়েছিল। তবে জেলে এক রাত কাটানোর পরেই অসুস্থ হয়ে পড়েন তিনি। উচ্চ রক্তচাপের জেরে তাঁকে জয়পুরের জওহর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

গত ৩১ অক্টোবর দিল্লির বাসভবন থেকে প্রতীপ চৌধুরীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছিল। ২০১৫ সালে একটি ঋণ নিষ্পত্তির সংক্রান্ত মামলায় তাঁর নাম উঠে এসেছিল। জয়সলমীরের এক হোটেলের সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করে তা কম দামে বিক্রি করায় জড়িত থাকার অভিযোগ রয়েছে তাঁর বিরুদ্ধে। ২৪ কোটি টাকার বকেয়া ঋণের জন্য এক সংস্থার প্রায় ২০০ কোটি টাকার সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করে এসবিআই। পরে সেই সম্পত্তি অ্যালকেমিস্ট গ্রুপের এক সংস্থাকে মাত্র ২৫ কোটি টাকায় বিক্রি করা হয়।

এক্ষেত্রে উল্লেখযোগ্য, অ্যালকেমিস্ট গ্রুপের সেই সংস্থাতেই অবসরের পরে যোগ দেন প্রতীপ চৌধুরি। সেখানে বোর্ড সদস্য হন তিনি।

তবে ব্যাঙ্কারদের একাংশের মতে, পুরো প্রক্রিয়াটাই ব্যাঙ্কিং নীতি মেনে করা হয়েছিল। এসবিআই চেয়ারম্যান দীনেশ খারা এই গ্রেপ্তারিকে 'অত্যন্ত দুর্ভাগ্যজনক' বলে বর্ণনা করেছিলেন। তিনি তাঁর শীঘ্র নিঃশর্ত মুক্তি কামনা করেন। তিনি বলেছিলেন, 'উক্ত ক্ষেত্রে কোনও অনিয়ম হয়নি।'

তিনি বলেন, এই ধরনের সমস্যাগুলি সর্বদা স্থানীয় পর্যায়ে মোকাবিলা করা হয়। এর সঙ্গে চেয়ারম্যানসহ ব্যাঙ্কের শীর্ষ ম্যানেজমেন্ট একেবারেই জড়িত নয়।

বন্ধ করুন