বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > Fact Check: ৬টি ইউটিউব চ্যানেলের পর্দাফাঁস, ভুয়ো খবর ছড়াচ্ছে, জানিয়ে দিল সরকার

Fact Check: ৬টি ইউটিউব চ্যানেলের পর্দাফাঁস, ভুয়ো খবর ছড়াচ্ছে, জানিয়ে দিল সরকার

ফ্যাক্ট চেক করেছে পিআইবি। প্রতীকী ছবি (AFP)

এর আগে মন্ত্রকের তরফে তিনটি ইউটিউব চ্যানেলের বিরুদ্ধে জোরালো পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছিল। তারাও নানা ভুয়ো খবর ছড়াত বলে অভিযোগ। এবার আরও ৬টি ইউটিউব চ্যানেলের বিরুদ্ধে সেই ভুয়ো খবর ছড়ানোর অভিযোগ উঠেছে।

স্নেহাশিস রায়

একাধিক ইউটিউব চ্যানেলের বিরুদ্ধে ভুয়ো খবর ছড়ানোর অভিযোগ।কেন্দ্রীয় তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রকের ফ্য়াক্ট চেকিং ইউনিট বৃহস্পতিবার অন্তত ৬টি ইউ টিউব চ্য়ানেলের বিরুদ্ধে অভিযোগ আনল। দেশে মিথ্যে তথ্য সম্প্রচার করা হচ্ছে এই অভিযোগ তোলা হয়েছে ওই ইউটিউব চ্যানেলের বিরুদ্ধে! ৬ সিরিজের টুইটার থ্রেডে প্রেস ইনফরমেশন ব্যুরোর ফ্যাক্ট চেকিং ইউনিট একাধিক প্রমাণকে হাজির করে দাবি করেছে ওই ইউটিউব চ্যানেলগুলিতে ভুয়ো খবর সম্প্রচার করা হচ্ছে।

মন্ত্রকের তরফে একটি প্রেস রিলিজে উল্লেখ করা হয়েছে, ৬টি ইউটিউব চ্যানেলের ২০ লাখ গ্রাহক রয়েছে। তাদের ভিডিয়োগুলি অন্তত ৫১ কোটি বার দেখা হয়েছে। একবার দেখে নেওয়া যাক কোন কোন ইউটিউব চ্যানেলের প্রতি অভিযোগ এনেছে পিআইবির ফ্যাক্ট চেক ইউনিট। তাদের গ্রাহক সংখ্যাই বা কত?

Nation TV - গ্রাহক সংখ্যা ৫.৫৭ লাখ

Samvaad TV- গ্রাহক সংখ্যা ১০.৯ লাখ

Sarokar Bharat- গ্রাহক সংখ্যা ২১.১ হাজার

Nation 24- গ্রাহক সংখ্যা ২৫.০৪ হাজার

Swarnim Bharat- গ্রাহক সংখ্যা ৬.০৭ হাজার

Samvaad Samachar- গ্রাহক সংখ্যা ৩.৪৮ লাখ

মন্ত্রকের মতে, চ্যানেলগুলি মিথ্যে খবর রটাচ্ছে। সুপ্রিম কোর্ট, পার্লামেন্টের কাজকর্ম, কেন্দ্রীয় সরকারের নানা পদক্ষেপ, ইভিএম সংক্রান্ত বিষয়গুলি, রাষ্ট্রপতি প্রধান বিচারপতিকে ভুলভাবে উপস্থাপিত করা নিয়ে অভিযোগ তোলা হয়েছে ফ্যাক্ট চেকিং ইউনিটের তরফে। মন্ত্রকের তরফে জানানো হয়েছে, চ্যানেলগুলি ভুয়ো, সংবেদনশীল থাম্বনেল ব্যবহার করছে। এমনকী নানা টিভি চ্যানেলের সংবাদ উপস্থাপকদের ছবি ব্যবহার করে এটা প্রমাণ করার চেষ্টা করছে যে তাদের খবরের বিশ্বাসযোগ্য়তা রয়েছে। এর মাধ্যমে তারা ট্রাফিক আনার চেষ্টা করছে। এর মাধ্যমে তারা চ্যানেলের আয় বৃদ্ধির চেষ্টা করছে।

এদিকে এর আগে মন্ত্রকের তরফে তিনটি ইউটিউব চ্যানেলের বিরুদ্ধে জোরালো পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছিল। তারাও নানা ভুয়ো খবর ছড়াত বলে অভিযোগ। এবার আরও ৬টি ইউটিউব চ্যানেলের বিরুদ্ধে সেই ভুয়ো খবর ছড়ানোর অভিযোগ উঠেছে।

এদিকে একাধিক ইউটিউব চ্যানেলের খবরের বিশ্বস্ততা নিয়ে আগেই নানা প্রশ্ন উঠেছিল। এবার পিআইবির ফ্যাক্ট চেকিং ইউনিট অত্যন্ত গুরুত্ব দিয়ে বিষয়টি সামনে এনেছে। একাধিক ইউটিউব চ্যানেলের তথ্য কতটা যাচাই করে পরিবেশন করা হয় তা নিয়েও প্রশ্ন ওঠে। তবে এবার সংশ্লিষ্ট ইউটিউব চ্যানেলের বিরুদ্ধে সরকার ঠিক কোন পদক্ষেপ নেয় সেটাই এখন দেখার।

এই খবরটি আপনি পড়তে পারেন HT App থেকেও। এবার HT App বাংলায়। HT App ডাউনলোড করার লিঙ্ক https://htipad.onelink.me/277p/p7me4aup

 

বন্ধ করুন