বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > কৃষকদের সমর্থনে রাস্তায় বামেরা, ভারত বনধ সফল করতে গিয়ে পুলিশের সঙ্গে হাতাহাতি
রেল অবরোধ কৃষকদের (ছবি সৌজন্যে পিটিআই) (PTI)
রেল অবরোধ কৃষকদের (ছবি সৌজন্যে পিটিআই) (PTI)

কৃষকদের সমর্থনে রাস্তায় বামেরা, ভারত বনধ সফল করতে গিয়ে পুলিশের সঙ্গে হাতাহাতি

  • কৃষকদের ডাকে ভারত বনধের প্রভাব পড়েছে দিল্লি-হরিয়ানার পাশাপাশি বাংলাতেও।

সংযুক্ত কিষাণ মোর্চার ডাকা ভারত বনধ চলছে দেশজুড়ে। ১০ ঘণ্টার এই বনধ চলে সকাল ৬টা থেকে। চলবে বিকেল ৪টে পর্যন্ত। এই পরিস্থিতিতে পঞ্জাব, হরিয়ানা থেকে দিল্লিগামী রাস্তা আটকেছেন শতাধিক কৃষক। আজ বিকেল ৪টে অবধি এই সীমানা বন্ধ রাখা হবে বলেই জানানো হয়েছে আন্দোলনকারী কৃষকদের তরফে। এদিকে উত্তরপ্রদেশের গাজীপুরেও বিপুল সংখ্যক কৃষক জয়ামেত করেছেন। তাই অশান্তির আশঙ্কায় সেখানে গাড়ি চলাচল বন্ধ করা হয়েছে প্রশাসনের তরফে। কৃষকদের ডাকে ভারত বনধের প্রভাব পড়েছে দিল্লি-হরিয়ানা ছাড়া বাংলাতেও।

এদিকে কৃষক নেতা রাকেশ তিকাইতের দাবি, আন্দোলনকারী কোনও পথ আটকাননি। তিনি বলেন, 'অ্যাম্বুলেন্স, ডাক্তার বা যারা জরুরি পরিষেবার সঙ্গে যুক্ত, তাঁরা তাঁদের গন্তব্যে যেতে পারেন। আমরা কোনও কিছু সিল করিনি, আমরা শুধু একটি বার্তা পাঠাতে চাই।'

এদিকে বাংলাতেও প্রভাব দেখা গেল সংযুক্ত কিষাণ মোর্চার ডাকা ভারত বনধের। রাজ্যের বিভিন্ন জেলায় রেল অবরোধ হয়। রেললাইনের উপর দাঁড়িয়ে পড়ে বাম সমর্থকরা। জিটি রোডে টায়ার জ্বালিয়ে অবরোধ করা হয়। জোরপূর্বক বাস আটকে দেওয়া হয়। কলকাতা থেকে হুগলি, পশ্চিম বর্ধমান, শিলিগুড়িতে বনধের সমর্থনে পথে নামে বামেরা।

এদিন ভারত বনধের সমর্থনে সল্টলেক করুণাময়ী মোড়ে বামপন্থী কর্মীরা পথ অবরোধ করতে গেলে পুলিশের সঙ্গে ধস্তাধস্তি শুরু হয় তাঁদের। পুলিশের সঙ্গে বচসায় জড়িয়ে পড়েন বামকর্মীরা। পরিস্থিতি উত্তপ্ত হয়ে উঠলে বচসা পরিণত হয় হাতাহাতিতে। 

 

বন্ধ করুন