বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > ‘শেষ নয়, স্থগিত’, আন্দোলন নিয়ে বড় ঘোষণা কৃষকদের, ১১ ডিসেম্বর ‘বিজয়’ উদযাপন
বড় খবর

‘শেষ নয়, স্থগিত’, আন্দোলন নিয়ে বড় ঘোষণা কৃষকদের, ১১ ডিসেম্বর ‘বিজয়’ উদযাপন

আন্দোলন স্থগিত কৃষকদের (ছবি সৌজন্যে এএনআই) (Ishant Kumar)
আন্দোলন স্থগিত কৃষকদের (ছবি সৌজন্যে এএনআই) (Ishant Kumar)

  • ১১ ডিসেম্বর থেকে ধরনা মঞ্চ ফাঁকা করে দেওয়া হবে। সেদিনই ‘বিজয় দিবস’ পালন করা হবে।

কৃষকদের দাবি মেনে নিয়েছে কেন্দ্র। এই সংক্রান্ত সরকারি চিঠি হাতে পেতেই আন্দোলন স্থগিত করার ঘোষণা করে সংযুক্ত কিষাণ মোর্চা। তবে যোগেন্দ্র যাদব, রাকেশ তিকাইতরা জানান আন্দোলন বন্ধ হয়নি। তবে সরকারের আশ্বাসে আপাতত আন্দোলন স্থগিত হয়েছে। ১১ ডিসেম্বর থেকে ধরনা মঞ্চ ফাঁকা করে দেওয়া হবে। সেদিনই ‘বিজয় দিবস’ পালন করা হবে। কৃষি মন্ত্রকের সচিব সঞ্জয় আগরওয়াল এই চিঠি লিখেছেন কৃষকদের।

কৃষক নেতা রাকেশ তিকাইত বলেন, ‘আমরা কালকেই বিজয় যাত্রা বের করতে চেয়েছিলাম। তবে দেশের প্রতিরক্ষা প্রধান জেনারেল বিপিন রাওয়াতের আগামিকাল শেষকৃত্য সম্পন্ন হবে। তাই তাঁর প্রতি সম্মান জানিয়ে আমরা ১১ ডিসেম্বর বিজয় উদযাপন করব।’ এদিকে যোগেন্দ্র যাদব জানান, আগামী ১৫ জানুয়ারি সংযুক্ত কিষাণ মোর্চা ফের একবার মিলিত হবে। সরকারের প্রতিশ্রুতি পূরণের বিষয়টি খতিয়ে দেখে আগামী পদক্ষেপের বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। 

উল্লেখ্য, দিল্লি সংলগ্ন গাজিপুর, টিকরি এবং সিঙ্ঘু সীমান্তে কৃষকদের বিক্ষোভ চলে বিগত একবছর ধরে। এই আবহে কয়েকদিন আগেই কৃষকদের তরফে আন্দোলন বন্ধের ইঙ্গিত মেলে। জানা গিয়েছে, ন্যূনতম সহায়ক মূল্য সহ একাধিক দাবির ক্ষেত্রে লিখিত প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়েছে কেন্দ্রের তরফে। তাছাড়া খড় পোড়ানো ইস্যুতে কেন্দ্র কৃষকদের লিখিত প্রতিশ্রুতি দেবে কেন্দ্র। পাশাপাশি আন্দোলনকারী কৃষকদের বিরুদ্ধে থাকা পুলিশ কেস প্রত্যাহার করার বিষয়েও আশ্বাস দেওয়া হয়েছে কেন্দ্রের তরফে। তবে কেন্দ্র নাকি শর্ত রেখেছিল যে আগে আন্দোলন প্রত্যাহার করতে হবে তারপর মামলা প্রত্যাহার করা হবে। তবে এই বিষয়টি মেনে নেননি আন্দোলনরত কৃষকরা। এই নিয়ে জটিলতা দেখা দিয়েছিল। তবে শেষ পর্যন্ত কৃষকরা আন্দোলন প্রত্যাহারের ঘোষণা নেন।

 

বন্ধ করুন