বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > পৃথিবীর 'ছোট দিন'-এর নয়া রেকর্ড! ২৪ ঘণ্টা হতে কয়েক মিলি সেকেন্ড কম লাগল ২৯ জুলাইয়ে
২৪ ঘণ্টা হতে কয়েক মিলি সেকেন্ড কম লাগল ২৯ জুলাই

পৃথিবীর 'ছোট দিন'-এর নয়া রেকর্ড! ২৪ ঘণ্টা হতে কয়েক মিলি সেকেন্ড কম লাগল ২৯ জুলাইয়ে

  • 'ইন্টারন্যাশনাল আর্থ রোটেশন অ্যান্ড রেফারেন্স সিস্টেম' এর মতে বিশ্ব আগের থেকে খানিক বেশি গতিতে ইদানিং ঘুরছে। এখনও পর্যন্ত পৃথিবীতে সবচেয়ে ছোট দিনের নিরিখে ২৮ টি দিনের উল্লেখ রয়েছে।

২৪ ঘণ্টা থেকে ১.৫৯ মিলি সেকেন্ড কম হয়েছে। ফলে পুরো ২৪ ঘণ্টারও কম সময়ে এক দিন পেরিয়ে গেল! আর এমন বিরল কাণ্ড ঘটিয়ে এই গ্রহ নতুন এক রেকর্ড তৈরি করে ফেলল। ২০২২ সালের ২৯ জুলাই পৃথিবীর এমন কাণ্ডের জেরে নতুন করে 'ছোট দিন' এর রেকর্ড তৈরি হতে চলেছে।

১৯৭৩ সালে শুরু হয়েছিল পরমাণু ঘড়ি দিয়ে পৃথিবীর প্রদক্ষিণের সময় গণনার প্রক্রিয়া। সেই থেকে পরমাণু ঘড়ি দিয়ে মাপা হয় পৃথিবী কতক্ষণে নিজের চারিদিকে ঘোরে তার হিসাব। আর এই হিসাবেই গোলমাল করে দিয়েছে নয়া রেকর্ড। দেখা গিয়েছে ২০২২ সালের ২৯ জুলাই পৃথিবীতে ২৪ ঘণ্টা সম্পন্ন হতে কয়েক মিলি সেকেন্ড বাকি ছিল। ১.৫৯ মিলিসেকেন্ড কমেই ২৯ জুলাই দিনটি সম্পন্ন হয়। ২৪ ঘণ্টা সম্পন্ন করতে ৮৬,৪০০ সেকেন্ডের প্রয়োজন হয়। উল্লেখ্য, মনে করা হয়, যখন পৃথিবীতে দিন বড় হয় তখন পৃথিবী দেরিতে ঘুরছে। আর দিন ছোট হলে এর উল্টোটা ধরা হয়। কয়েক বছর আগে এমন ত্তত্ব মিলেছিল যে স্বাভাবিক গতির থেকে পৃথিবী সম্ভবত কম গতিতে ঘুরতে শুরু করছে।

'ইন্টারন্যাশনাল আর্থ রোটেশন অ্যান্ড রেফারেন্স সিস্টেম' এর মতে বিশ্ব আগের থেকে খানিক বেশি গতিতে ইদানিং ঘুরছে। এখনও পর্যন্ত পৃথিবীতে সবচেয়ে ছোট দিনের নিরিখে ২৮ টি দিনের উল্লেখ রয়েছে। বিজ্ঞানীরা বলছেন, ধীরে ধীরে পৃথিবীর নিজের চারিদিকে ঘোরার গতিকে প্রভাবিত করছে চাঁদ। শুধু যে ২০২২ সালের ২৯ জুলাই এমনটা হয়েছে তা নয়। এর আগে ২০২০ সালের ১৯ জুলাইও এমনই ঘটনা ঘটেছে। তবে এরপর ২০২১ সালে পৃথিবী ফের নিজের চেনা গতিতে প্রবলবেগে ধাবমান হতে থাকে। কোনও বৈজ্ঞানিক বলছেন, পৃথিবীতে হিমবাহ গলন এর কারণ হতে পারে, কেউ বলছেন পৃথিবীর কেন্দ্রভাব একে প্রভাবিত করত পারে। তবে অনুসন্ধান এখনও জারি রয়েছে।

বন্ধ করুন