বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > Fighter Jets Scrambled after Bomb Threat: ভারতের আকাশসীমায় বোমাতঙ্ক, চিনগামী উড়ানকে ‘তাড়া’ বায়ুসেনার যুদ্ধবিমানের

Fighter Jets Scrambled after Bomb Threat: ভারতের আকাশসীমায় বোমাতঙ্ক, চিনগামী উড়ানকে ‘তাড়া’ বায়ুসেনার যুদ্ধবিমানের

মাঝ আকাশে সুখোই। প্রতীকী ছবি (Indian Air Force Twitter)

পঞ্জাব ও যোধপুর থেকে বায়ুসেনার সুখোই যুদ্ধবিমান উড়ে যায় সেই উড়ানকে ‘তাড়া’ করতে। সেই বিমানটি যাতে দিল্লিতে অবতরণ না করতে পারে, তা নিশ্চিত করে যুদ্ধবিমানগুলি।

ইরান থেকে চিনের গুয়াংঝাওতে উড়ে যাচ্ছিল একটি বিমান। যান্ত্রিক ত্রুটির কথা বলে দিল্লি বিমানবন্দরে অবতরণে অনুমতি চায় বিমানটি। সেই বিমান ঘিরেই বোমাতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। এরপরই পঞ্জাব ও যোধপুর থেকে বায়ুসেনার সুখোই যুদ্ধবিমান উড়ে যায় সেই উড়ানকে ‘তাড়া’ করতে। সেই বিমানটি যাতে দিল্লিতে অবতরণ না করতে পারে, তা নিশ্চিত করে যুদ্ধবিমানগুলি।

এদিকে এই ঘটনার জেরে দিল্লি বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ হাই অ্যালার্ট জারি করে। তেহরান থেকে টেকঅফ করা চিনগামী ওই বিমানটি দিল্লিতে জরুরি অবতরণের অনুমতি চেয়েছিল সকালে। দাবি করা হয়, বিমানে যান্ত্রিক ত্রুটি দেখা দিয়েছে। এরই মাঝে সকাল ৯টা ২০ মিনিট নাগাদ পুলিশের কাছে একটি ফোন আসে। বলা হয়, তেহরান থেকে আগত ওই বিমানে বোমা রয়েছে। ততক্ষণে চিনগামী বিমানটি ভারতীয় আকাশসীমায় ঢুকে পড়ে। সঙ্গে সঙ্গে দিল্লি পুলিশের তরফে বোমাতঙ্কের বিষয়ে অবগত করা হয় এয়ার ট্রাফিক কন্ট্রোলকে।

এরপরই ভারতীয় বায়ুসেনার কাছে খবর যায়। উত্তর ভারতের দুই বেস থেকে যুদ্ধবিমান উড়ে যায় সেই বিমানের উদ্দেশে। ভারতের কোথাও যাতে বিমানটি অবতরণ করতে না পারে এবং আকাশে যাতে কোনও দুর্ঘটনা বা বিপত্তি না ঘটে, তা নিশ্চিত করতেই এই পদক্ষেপ করা হয়। এই আবহে দিল্লি বিমানবন্দরে অবতরণের অনুমতি চাইলেও তা দেওয়া হয়নি বিমানটিকে। দিল্লি এটিসি-র তরফে বিমানটিকে যোধপুরে অবতরণ করার পরামর্শ দেওয়া হয়। যদিও যোধপুর বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষও ওই বিমানটিকে অবতরণের অনুমতি দেয়নি। বর্তমানে বিমানটি চিনের দিকে উড়ে যাচ্ছে বলে জানা গিয়েছে।

 

বন্ধ করুন