বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > জোট বড় বালাই, পছন্দের আসন নাও পেতে পারেন প্রফুল্ল মহন্ত
অসমের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী প্রফুল্ল কুমার মহন্ত। ফাইল ছবি।
অসমের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী প্রফুল্ল কুমার মহন্ত। ফাইল ছবি।

জোট বড় বালাই, পছন্দের আসন নাও পেতে পারেন প্রফুল্ল মহন্ত

  • বিজেপি এবং অসম গণ পরিষদ জোটের আসন বন্টনের জেরে কোপ পড়েছে প্রফুল্ল কুমার মহন্তের আসনে।

বিধানসভা নির্বাচন যত এগিয়ে আসছে তত তেতে উঠছে উত্তর–পূর্ব রাজ্য অসম। এবার সেখানে প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী প্রফুল্ল কুমার মহন্তকে নিজের ঘরোয়া আসন দেওয়া হচ্ছে না বলে খবর। আর এই খবর প্রকাশ্যে আসতেই তেতে উঠেছে অসমের রাজনৈতিক বাতাবরণ। বিজেপি এবং অসম গণ পরিষদ জোটের আসন বন্টনের জেরে কোপ পড়েছে প্রফুল্ল কুমার মহন্তের আসনে।

প্রফুল্ল কুমার মহন্ত অসমের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী ছিলেন। তিনি অসম আন্দোলনের অন্যতম নেতা ও অসম গণ পরিষদের প্রাক্তন সভাপতি ছিলেন। ১৯৮৫ সালে তিনি অসমের মুখ্যমন্ত্রী পদে বসেন। ১৯৯৬ সালে তিনি দ্বিতীয়বার অসমের মুখ্যমন্ত্রী পদে নির্বাচিত হয়েছিলেন। ২০০৫ সালে প্রফুল্ল কুমার মহন্তকে অসম গণ পরিষদ (অগপ) থেকে বহিষ্কার করা হয়েছিল। ফলে তিনি ২০০৫ সালের ১৫ সেপ্টেম্বর অসম গণ পরিষদ প্রগতিশীল নামে একটি নতুন রাজনৈতিক দল তৈরি করেছিলেন। ২০০৯ সালের সাধারণ নির্বাচনে তিনি অসম গণ পরিষদে পুনরায় যোগদান করেন।

১৯৮৫ সনের ২৪ ডিসেম্বর থেকে ১৯৯০ সনের ২৭ নভেম্বর তিনি মুখ্যমন্ত্রী পদে ছিলেন। তারপর তিনি ১৯৯৬ সালে বঢ়মপুর বিধানসভা থেকে দ্বিতীয়বার মুখ্যমন্ত্রী পদে নির্বাচিত হয়েছিলেন। ১৯৯৬ সালের ১৫ মে থেকে ২০০১ সালের ১৭ মে পর্যন্ত তিনি দ্বিতীয়বার মূ্খ্যমন্ত্রীর পদে ছিলেন। এই বঢ়মপুর আসনটিতেই এবার কোপ পড়েছে। বিজেপি এবং অগপ–এর মধ্যে যে আসন সমঝোতা হয়েছে, তাতে বিজেপি পাঁচটি কেন্দ্রে কমপক্ষে নিজেদের প্রার্থী দেবে। যে পাঁচটি কেন্দ্র অগপ–এর জেতা আসন।

এই মুহূর্তে অসমের যা পরিস্থিতি তা বিচার করলে দেখা যায়, অগপ নেতৃত্ব অতুল বোরার সঙ্গে সুসম্পর্ক নেই প্রফুল্ল কুমার মহন্তের। তার জেরেই এই ঘরোয়া আসনে কোপ পড়েছে তাঁর। এই বিষয়ে নামপ্রকাশে অনিচ্ছুক এক অগপ নেতা বলেন, ‘‌বিজেপি যদি তাঁকে ঘরোয়া আসন না দেয় তাহলে অন্য আসন থেকে দাঁড়াতে পারেন তিনি। ১৯৮৫ এবং ১৯৯৬ সালে নওগাঁও থেকে তিনি জয়ী হয়েছিলেন। সেখান থেকে দাঁড়াতে পারেন।’‌ ২০১৬ সালে প্রথম ৬০টি আসন জিতে অসমে ক্ষমতায় এসেছিল। তখন বিজেপিকে সমর্থন করেছিল অগপ। তারা ১৪টি আসন দিয়ে সমর্থন করেছিল। আর বোড়োল্যান্ড পিপলস ফ্রন্ট ১২টি আসন পেয়েছিল।

এই আসন সমঝোতা নিয়ে বিজেপি এবং অগপ নেতারা দিল্লি গিয়েছেন। সেখানে জেপি নড্ডা ও অমিত শাহের সঙ্গে বৈঠকে বসেছেন। সেখানেই আসন সমঝোতা চূড়ান্ত হবে। এই বিষয়ে সাংবাদিকদের অসমের মন্ত্রী হেমন্ত বিশ্বশর্মা বলেন, ‘‌৯৯ শতাংশ আসন সমঝোতা নিয়ে আলোচনা হয়ে গিয়েছে এবং তা চূড়ান্ত হয়ে গিয়েছে। বাকি যেটুকু পড়ে আছে তা দিল্লিতে চূড়ান্ত হয়ে যাবে।’‌ এখানে তিন দফায় ভোট হবে। ২৭ মার্চ, ১ এপ্রিল এবং ৬ এপ্রিল।

বন্ধ করুন