বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > কয়লা দুর্নীতিতে দোষী সাব্যস্ত বাজপেয়ী জমানার প্রতিমন্ত্রী দিলীপ রায়
দিলীপ রায়
দিলীপ রায়

কয়লা দুর্নীতিতে দোষী সাব্যস্ত বাজপেয়ী জমানার প্রতিমন্ত্রী দিলীপ রায়

  • দীর্ঘ ২১ বছর বিচার প্রক্রিয়া চলার পর তাঁকে দোষী সাব্যস্ত করল সিবিআই আদালত। প্রয়াত প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী অটলবিহারী বাজপেয়ীর মন্ত্রিসভায় তিনি কয়লা প্রতিমন্ত্রী ছিলেন।

প্রাক্তন কেন্দ্রীয় কয়লা প্রতিমন্ত্রী দিলীপ রায়কে দুর্নীতির অভিযোগে দোষী সাব্যস্ত করল নয়াদিল্লির বিশেষ সিবিআই আদালত। ১৯৯৯ সালেও ঝাড়খণ্ডে কয়লা ব্লকের দুর্নীতিতে তাঁর নাম জড়িয়েছিল। তারপর দীর্ঘ ২১ বছর বিচার প্রক্রিয়া চলার পর তাঁকে দোষী সাব্যস্ত করল সিবিআই আদালত। প্রয়াত প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী অটলবিহারী বাজপেয়ীর মন্ত্রিসভায় তিনি কয়লা প্রতিমন্ত্রী ছিলেন।

মঙ্গলবার বিশেষ সিবিআই আদালতের বিচারক ভারত পরাশর সমস্ত তথ্যপ্রমাণ খতিয়ে দেখে দিলীপ রায়কে দোষী সাব্যস্ত করেন। একইসঙ্গে কয়লা মন্ত্রকের অফিসার প্রদীপ কুমার ব্যানার্জি, নিত্যানন্দ গৌতম এবং ক্যাস্ট্রন টেকনোলজিস প্রাইভেট লিমিটেডের ডিরেক্টর মহেন্দ্র কুমার আগরওয়াল্লাকেও দোষী সাব্যস্ত করেছে সিবিআইয়ের বিশেষ আদালত।

এদিন রায় দিতে গিয়ে বিচারক বলেন, ‘‌এখানে অপরাধের ষড়যন্ত্র সংগঠিত করতে প্রবল প্রচেষ্টা রয়েছে এবং দেশের প্রাকৃতিক সম্পদের নয়ছয় করা হয়েছে।’‌ আজ মোট চারজনকে ও দুটি সংস্থাকে দোষী সাব্যস্ত করা হয়েছে। এখানে দুর্নীতি বিরোধী আইনে, অপরাধের ষড়যন্ত্রে, প্রতারণা এবং বিশ্বাসভঙ্গের ধারায় তাঁদের অভিযুক্ত করা হয়েছে। আগামী ১৪ অক্টোবর পরবর্তী শুনানিতে সাজা ঘোষণা করা হবে।

আদালত সূত্রে খবর, ঝাড়খণ্ডের গিরিডিতে এনডিএ জমানায় এই কয়লা দুর্নীতি হয়েছিল। এই দিলীপ রায় একজন বড় হোটেল ব্যবসায়ী। তাছাড়া তিনি বিজু জনতা দলের প্রতিষ্ঠাতা সদস্যদের মধ্যে একজন। ২০০২ সালে তিনি নির্দল হিসাবে রাজ্যসভায় মনোনীত হন। ২০০৪ সালে তিনি কংগ্রেসে যোগ দেন এবং ২০০৮ সালে কংগ্রেস ত্যাগ করেন। ২০১৪ সালে ফের বিজেপি’‌র বিধায়ক হিসাবে রাউরকেল্লা থেকে নির্বাচিত হন। তবে ২০১৮ সালের নভেম্বর মাসে সিবিআই চার্জশিট দেওয়ার পর দল ত্যাগ করেন তিনি।

বন্ধ করুন