হান্দওয়ারা এনকাউন্টারে মৃত্যু চার জওয়ান ও এক পুলিশকর্মীর (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য এএনআই)
হান্দওয়ারা এনকাউন্টারে মৃত্যু চার জওয়ান ও এক পুলিশকর্মীর (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য এএনআই)

হান্দওয়ারা এনকাউন্টারে কর্নেল, মেজর-সহ নিহত সুরক্ষাবাহিনীর ৫ সদস্য, খতম ২ জঙ্গি

  • একাধিক সফল সন্ত্রাস বিরোধী অভিযানে ছিলেন কর্নেল শর্মা। সাহসিকতার জন্য তিনি দু'বার পুরস্কার পেয়েছেন।

জম্মু ও কাশ্মীরের হান্দওয়ারায় জঙ্গিদের সঙ্গে গুলির লড়াইয়ে মৃত্যু হল চার জওয়ানের। নিহত হয়েছেন এক পুলিশকর্মী। খতম করা হয়েছে দুই জঙ্গিকে।

কুপওয়ারা জেলায় হান্দওয়ারার ছানজমুল্লা এলাকায় শনিবার দুপুর সাড়ে তিনটে থেকে গুলির লড়াই শুরু হয়েছিল। জঙ্গিরা স্থানীয় একটি বাড়িতে লুকিয়ে ছিল। সেই বাড়ির সদস্যদের বন্দি করেছিল তারা। 

ভারতীয় সেনার তরফে জানানো হয়েছে, ছানজমুল্লার একটি বাড়িতে সাধারণ নাগরিকদের বন্দি করার খবর পেয়ে সেনা এবং জম্মু-কাশ্মীর পুলিশ একটি যৌথ অভিযান শুরু করে। নাগরিকদের উদ্ধার করার জন্য পাঁচ জওয়ান ও পুলিশের একটি দল সেই বাড়িতে ঢোকে। নাগরিকদের তাঁরা উদ্ধার করেন। কিন্তু তাঁদের উপর গুলিবর্ষণ শুরু করে জঙ্গিরা। সেখানেই তাঁরা মারা গিয়েছেন। 

সেনা জানিয়েছে, ২১ রাষ্ট্রীয় রাইফেলস ব্যাটেলিয়নের কর্নেল আশুতোষ শর্মা, মেজর অনুজ, পুলিশ সাব-ইনস্পেক্টর শাকিল কাজি, একজন ল্যান্স নায়েক ও একজন রাইফেলম্যানের মৃত্যু হয়েছে। এর আগে, একাধিক সফল সন্ত্রাস বিরোধী অভিযানে ছিলেন কর্নেল শর্মা। সাহসিকতার জন্য তিনি দু'বার পুরস্কার পেয়েছেন। তাঁর স্ত্রী ও ১২ বছরের মেয়ে আছেন।

এদিকে, এনকাউন্টারের সময় সারা রাত নিরাপত্তাবাহিনীর অভিযানের বিরুদ্ধে ফেসবুক ও টেলিগ্রামে প্রোপাগ্যান্ডা ছড়ানো হয়। কয়েকটি পাকিস্তানি অ্যাকাউন্টের তরফে সেই কাজ করা হচ্ছিল।

বন্ধ করুন