বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > গান্ধী স্মরণ দুবাইয়ে, বাপুর জন্ম জয়ন্তী উপলক্ষে বুর্জ খালিফায় উড়ল তেরঙ্গা
বাপুর জন্ম জয়ন্তী উপলক্ষে বুর্জ খালিফায় উড়ল তেরঙ্গা (ছবি সৌজন্যে এএনআই)
বাপুর জন্ম জয়ন্তী উপলক্ষে বুর্জ খালিফায় উড়ল তেরঙ্গা (ছবি সৌজন্যে এএনআই)

গান্ধী স্মরণ দুবাইয়ে, বাপুর জন্ম জয়ন্তী উপলক্ষে বুর্জ খালিফায় উড়ল তেরঙ্গা

  • গতকাল ১৫২ তম জন্মবার্ষিকী ছিল ভারতের জাতির জনকে। সেই উপলক্ষে গোটা বিশ্বে পালিত হয় মহাত্মা গান্ধীর জন্মদিন।

অহিংসার আদর্শ ছড়িয়ে গোটা বিশ্বেই সম্মানিত মহাত্মা গান্ধী। তিনি শান্তির প্রতীক। তাই তাঁর জন্ম জয়ন্তী উপলক্ষে পালিত হয় বিশ্ব অহিংসা দিবস। গতকাল ১৫২ তম জন্মবার্ষিকী ছিল ভারতের জাতির জনকে। সেই উপলক্ষে গোটা দেশে পালিত হয় মহাত্মা গান্ধীর জন্মদিন। তবে ভারতের পাশাপাশি গান্ধীজিকে শ্রদ্ধা জানায় বাকি বিশ্ব। সেই মতো দুবাইয়েও শ্রদ্ধাজ্ঞাপন করা হয়েছিল দুবাইয়ে। আলোকসজ্জার মাধ্যমে ফুটিয়ে তোলা হয় মহাত্মা গান্ধীকে। সঙ্গে বুর্জ খালিফায় উড়তে দেখা যায় ভারতীয় জাতীয় পতাকার রঙ।

অহিংসার আদর্শ ছড়িয়ে গোটা বিশ্বেই সম্মানিত মহাত্মা গান্ধী। তিনি শান্তির প্রতীক। তাই তাঁর জন্ম জয়ন্তী উপলক্ষে পালিত হয় বিশ্ব অহিংসা দিবস। গতকাল ১৫২ তম জন্মবার্ষিকী ছিল ভারতের জাতির জনকে। সেই উপলক্ষে গোটা দেশে পালিত হয় মহাত্মা গান্ধীর জন্মদিন। তবে ভারতের পাশাপাশি গান্ধীজিকে শ্রদ্ধা জানায় বাকি বিশ্ব। সেই মতো দুবাইয়েও শ্রদ্ধাজ্ঞাপন করা হয়েছিল দুবাইয়ে। আলোকসজ্জার মাধ্যমে ফুটিয়ে তোলা হয় মহাত্মা গান্ধীকে। সঙ্গে বুর্জ খালিফায় উড়তে দেখা যায় ভারতীয় জাতীয় পতাকার রঙ।

|#+|

২ অক্টোবর মহাত্মা গান্ধীর জন্মদিনটিকে গোটা বিশ্বে অহিংস দিবস হিসেবে পালন করা হয়। ব্রিটিশদের বিরুদ্ধে গান্ধীর অহিংস আন্দোলনকে শ্রদ্ধা জানিয়ে এই দিবস উদযাপন হয়। সেই উপলক্ষেই শনিবার তাঁকে স্মরণ করেন প্রত্যেকেই। এই আবহে দুবাইয়ে বিশ্বের উচ্চতম বিল্ডিং বুর্জ খালিফায় আলোকসজ্জার আয়োজন করা হয়েছিল। সেই আলোকসজ্জার মাধ্যমেই মহাত্মা গান্ধীকে শ্রদ্ধা জানানো হয়।

সেই আলোকসজ্জার একটি ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করা হয় বুর্জ খালিফা কর্তৃপক্ষের তরফে। সেখানে লাঠি হাতে মহাত্মা গান্ধীকে হাঁটতে দেখা যাচ্ছে। সঙ্গে ভেসে উঠছে ভারতের জাতীয় পতাকা। ভিডিয়োটি পোস্ট করে বুর্জ খালিফার তরফে গান্ধীর বাণী উল্লেখ করে লেখা হয়, 'বিশ্বকে যেভাবে দেখতে চাও সেই বদল নিজেকেই আনতে হবে। বলেছেন মহাত্মা গান্ধী। জাতির জনক গান্ধীজির জন্মবার্ষিকী উৎযাপন করছে বুর্জ খালিফা। যিনি আগামী বহু প্রজন্মের কাছে অনুপ্রেরণা হয়ে থাকবেন।'

 

বন্ধ করুন