বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > Uttar Pradesh: অভিযান চলাকালীন মিলল গ্যাংস্টারের মেয়ের মৃতদেহ, নিগ্রহের অভিযোগ পুলিশের বিরুদ্ধে
কুখ্যাত গ্যাংস্টার কানহাইয়া যাদবের বাড়িতে পুলিশি অভিযানের পর তার মেয়ের মৃতদেহ উদ্ধার হয় (ছবি টুইটার ও এএনআই)

Uttar Pradesh: অভিযান চলাকালীন মিলল গ্যাংস্টারের মেয়ের মৃতদেহ, নিগ্রহের অভিযোগ পুলিশের বিরুদ্ধে

  • Uttar Pradesh: ঘটনায় গ্যাংস্টারের ছোট মেয়েকেও মারধর করা হয়েছে বলে অভিযোগ। কানহাইয়ার ছোট মেয়ে গুরুতর জখম হয়েছে বলে জানা গিয়েছে। সেই মেয়ে বর্তমানে চিকিৎসাধীন রয়েছেন বলে জানান জেলা ম্যাজিস্ট্রেট।

উত্তরপ্রদেশের কুখ্যাত গ্যাংস্টার কানহাইয়া যাদবের বাড়িতে এক পুলিশি অভিযানের পর তার মেয়ের মৃতদেহ উদ্ধার হওয়াকে ঘিরে চাঞ্চল্য ছড়াল। ঘটনাটি ঘটেছে উত্তরপ্রদেশের চান্দৌলি জেলায়। জানা গিয়েছে, গ্যাংস্টারের বাড়িতে পুলিশি অভিযানের পর মৃত অবস্থায় পাওয়া গিয়েছে তার মেয়ে নিশা যাদবকে। এই আবহে স্থানীয়রা পুলিশের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ দেখায়। অভিযোগ, মেয়ে নিশাকে এক পুলিশ অফিসার মারধর করেছে। এর জেরেই নিশার মৃত্যু হয়েছে বলে অভিযোগ করা হচ্ছে।

বারাণসীর জেলা ম্যাজিস্ট্রেট সঞ্জীব সিং এই ঘটনা প্রসঙ্গে বলেন, ‘গ্যাংস্টার কানহাইয়া যাদবের মেয়ে নিশাকে তার বাড়িতে মৃত অবস্থায় পাওয়া গিয়েছে। মৃতকে সাইয়েদরাজা থানার এসএইচও মারধর করেছে বলে অভিযোগ করা হয়েছে।’ ঘটনায় গ্যাংস্টারের ছোট মেয়েকেও মারধর করা হয়েছে বলে অভিযোগ। কানহাইয়ার ছোট মেয়ে গুরুতর জখম হয়েছে বলে অভিযোগ রয়েছে। কানহাইয়ার ছোট মেয়ে বর্তমানে চিকিৎসাধীন রয়েছেন বলে জানান জেলা ম্যাজিস্ট্রেট।

আরও পড়ুন: কোভিড টিকা নিতে বাধ্য করা যায় না, ‘শর্ত’ প্রত্যাহারের নির্দেশ সুপ্রিম কোর্টের

জেলা ম্যাজিস্ট্রেট সঞ্জীব সিং জানান, অভিযুক্ত এসএইচওকে বরখাস্ত করা হয়েছে এবং মৃতের পরিবারের অভিযোগ পেয়ে এফআইআর দায়ের করার প্রক্রিয়া চলছে। এদিকে চান্দৌলির এসপি অঙ্কুর আগরওয়াল, ‘একটি ভিডিয়ো ভাইরাল হয়েছিল যাতে একজন মহিলা মারা যায়। পুলিশ সন্দেহভাজন কানহাইয়া যাদবের বাড়িতে পৌঁছেছিল একটি অভিযানে। সেখানে তাকে পাওয়া যায়নি। ঘটনার তদন্ত চলছে। প্রাথমিকভাবে আমাদের অনুমান আত্মহত্যা করেছে সেই মহিলা। আমরা মায়নাতদন্তের রিপোর্টের জন্য অপেক্ষা করছি। পর্যাপ্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।’ এদিকে ঘটনা প্রসঙ্গে সমাজবাদী পার্টি নেতা প্রভু নারায়ণ সিং যাদব বলেন, ‘পুলিশ কানহাইয়া যাদবের বাড়িতে যায়। সে ওই সময় সেখানে ছিল না। এরপর পুলিশ তার মেয়েদের মারধর করে। এর জেরে বড় মেয়ে মারা গিয়েছে এবং ছোট মেয়ে হাসপাতালে ভর্তি রয়েছে।’

বন্ধ করুন