বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > খাস গুজরাতে চাপে বিজেপি, গোধরা পুরসভা ছিনিয়ে নিল আসাউদ্দিনের মিম
ফাইল ছবি : রয়টার্স ও টুইটার (Reuters Twitter)
ফাইল ছবি : রয়টার্স ও টুইটার (Reuters Twitter)

খাস গুজরাতে চাপে বিজেপি, গোধরা পুরসভা ছিনিয়ে নিল আসাউদ্দিনের মিম

বিজেপি যদিও ৪৪ সদস্যের গোধরা পুরসভার ১৮টা সিটে জিতেছে। নির্দল প্রার্থী জিতেছেন ১৮ জন। সেখানে মিম-এর প্রার্থীই ছিলেন সাকুল্যে ৭ জন। কোনও দলই নিরঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা পায়নি।

গত ১৯ বছরে যা হয়নি, সেটাই হল। নরেন্দ্র মোদী, অমিত শাহের রাজ্যে গুজরাতের গোধরা পুরসভার দখল হারাল গেরুয়া শিবির। 'হিন্দুত্বের গড়ে' ৫ জন অমুসলিমসহ ১৭জন নির্দল প্রার্থীকে ট্রাম্প কার্ড করেই ক্ষমতা ছিনিয়ে নিল আসাদউদ্দিন ওয়াইসির মিম (AIMIM) ।

জয়ের সম্পর্কে গুজরাতে মিমের রাজ্য সভাপতি সাবির কাবলিওয়ালা বলেন, 'আমরা বিজেপিকে গোধরায় ক্ষমতায় ফেরা থেকে আটকে দিতে সফল হয়েছি। ৪৪ জনের বোর্ডের মধ্যে ১৭ জন নির্দল প্রার্থী ছিলেন, তাঁদের সঙ্গে পেয়েছি। প্রায় ১৯ বছর পর গোধরা পুরসভা থেকে বিজেপির মতো কট্টর সাম্প্রদায়িক দলকে সরানো গিয়েছে।'

বিজেপি যদিও ৪৪ সদস্যের গোধরা পুরসভার ১৮টা সিটে জিতেছে। নির্দল প্রার্থী জিতেছেন ১৮ জন। সেখানে মিম-এর প্রার্থীই ছিলেন সাকুল্যে ৭ জন। কোনও দলই সংখ্যাগরিষ্ঠতা পায়নি।

কিন্তু সেই নির্দল প্রার্থীদের দিয়েই শেষমেশ বাজিমাত করল ওয়াইসির মিম। ১৭ নির্দল প্রার্থীদের সমর্থনেই গোধরায় হল পালাবদল।

নির্দল প্রার্থীদের দলে টানার চেষ্টা করতে অবশ্য বিজেপি নেতৃত্বও কসুর করেনি। অথচ সব সমীকরণ ভেঙে আসাউদ্দিনের দলেই ভিড়ে যান ৫ জন অমুসলিম কাউন্সিলর।

গত ২৮ ফেব্রুয়ারি গোধরা পুরসভার নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। আজ থেকে প্রায় ১৯ বছর আগে ২০০২ সালে গোধরা পুরসভায় ক্ষমতায় আসে বিজেপি।

বন্ধ করুন