বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > বড়সড় পতনের পরদিনও নিম্নমুখী সোনার দর, অব্যাহত রুপোর পতন
বড়সড় পতনের পরদিনও নিম্নমুখী সোনার দর, অব্যাহত রুপোর পতন (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য রয়টার্স)
বড়সড় পতনের পরদিনও নিম্নমুখী সোনার দর, অব্যাহত রুপোর পতন (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য রয়টার্স)

বড়সড় পতনের পরদিনও নিম্নমুখী সোনার দর, অব্যাহত রুপোর পতন

  • বিশ্ব বাজারের সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে ভারতীয় বাজারে পড়ল সোনার দর।

বিশ্ব বাজারের সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে ভারতীয় বাজারে পড়ল সোনার দর। বৃহস্পতিবার ভারতে এমসিএক্স সূচকে ১০ গ্রাম ডিসেম্বর গোল্ড ফিউচার্সের দাম ০.১৪ শতাংশ কমে দাঁড়িয়েছে ৫০,৪২৬ টাকা। একইসঙ্গে এক কেজি রুপোর দাম ০.০৬ শতাংশ কমে হয়েছে ৬০,১০০ টাকা।

গত সেশনেও পতনের সাক্ষী ছিল সোনা এবং রুপো। তখন এমসিএক্স সূচকে ১০ গ্রাম হলুদ ধাতুর দাম ০.৯ শতাংশ বা ৪৫০ টাকা কমেছিল। রুপোর তো বড়সড় পতন হয়েছিল। সেই সেশনে এক কেজি রুপোর দাম ২,০৮০ টাকা বা ৩.৩ শতাংশ কমেছিল।

বিশ্ব বাজারে গত সেশনে একধাক্কায় অনেকটা পতনের পর সোনার দর সামান্য পরিবর্তন হয়েছে। এক আউন্স স্পট গোল্ডের দাম দাঁড়িয়েছে ১,৮৭৭.৮৩ ডলার। গত সেশনে দু'শতাংশ দাম পড়েছিল সোনা। তবে রুপোর দর সামান্য বেড়েছে। 

ইউরোপে নতুন করে করোনাভাইরাস সংক্রমণের আশঙ্কা তৈরি হওয়ায় অর্থনীতির অবস্থা আরও শোচনীয় হবে বলে উদ্বেগ তৈরি হয়েছে। তার জেরে ছ'টি মূল প্রতিদ্বন্দ্বী মুদ্রার নিরিখে মার্কিন ডলার সূচক উর্ধ্বমুখী আছে। প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের আগে নয়া একটি আর্থিক প্যাকেজ নিয়ে এখনও চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত না হওয়ার ফলে নিশ্চিত হতে পারছেন না লগ্নিকারীরা। একইসঙ্গে একমাসের জন্য ফ্রান্সে শাটডাউন এবং জার্মানিতে কড়া বিধিনিষেধ কার্যকর হতে চলায় পরিস্থিতির তেমন কোনও উন্নতি হয়নি। ফলে লগ্নিকারীদের মনে আশঙ্কা তৈরি হয়েছে।

বন্ধ করুন