বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > অক্টোবরের শুরুতে আরও কমতে পারে দাম, উৎসবের মরশুমের আগেই কি সোনা কেনা উচিত?
সেপ্টেম্বরে ভারতের বাজারে কমেছে সোনার দাম। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য পিটিআই)
সেপ্টেম্বরে ভারতের বাজারে কমেছে সোনার দাম। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য পিটিআই)

অক্টোবরের শুরুতে আরও কমতে পারে দাম, উৎসবের মরশুমের আগেই কি সোনা কেনা উচিত?

  • কী করবেন?

সেপ্টেম্বরে ভারতের বাজারে কমেছে সোনার দাম। বিশেষজ্ঞদের মতে, চলতি মাসের গোড়ার দিকে হলুদ ধাতুর দাম আরও কমতে পারে। পরবর্তী একমাসে কিছুটা ঊর্ধ্বমুখী হয়ে ১০ গ্রাম সোনার দাম ৪৮,০০০ টাকার পৌঁছে যাওয়ার সম্ভাবনা আছে। সেই পরিস্থিতিতে উৎসবের মরশুমের আগে দাম কিছুটা কমলেই সোনা কেনার পরামর্শ দিচ্ছেন বিশেষজ্ঞরা।

গত শুক্রবার এমসিএক্স সূচকে ১০ গ্রাম ডিসেম্বর গোল্ড ফিউচার্সের দাম ০.৫ শতাংশ কমে দাঁড়িয়েছে ৪৬,৫০০ টাকা। যা বৃহস্পতিবারের থেকে ২১ টাকা কম। সেপ্টেম্বরে সোনার দাম চার শতাংশের মতো কমেছে। গত অগস্টে ২.১ শতাংশ পতনের সম্মুখীন হয়েছিল হলুদ ধাতু। সেই পরিস্থিতিতে উৎসবের মরশুমে সোনা কেনার জন্য কি আরও অপেক্ষা করা উচিত নাকি এখনই কিনে নেওয়া উচিত, তা নিয়ে অনেকেই ভাবনাচিন্তা করছেন।

বিষয়টি নিয়ে আইআইএফএল সিকিউরিটিজের অনুজ গুপ্ত জানান, চলতি মাসের প্রথম ১৪-১৫ দিনে এমসিএক্স সূচকে ১০ গ্রাম সোনার দাম আরও কমে ৪৫,৫০০ টাকা থেকে ৪৫,০০০ টাকায় নেমে যেতে পারে। কারণ সেই সময় মার্কিন ডলার শক্তিশালী থাকার সম্ভাবনা দেখা যাচ্ছে। যখনই মার্কিন ডলারের দুর্বলতার কোনও লক্ষণ ধরা পড়বে, তখনই আন্তর্জাতিক বাজারে এক আউন্স সোনার দাম ১,৭৫০ ডলার থেকে ১,৭৬০ ডলারের গণ্ডি পার করে যেতে পারে। যা পরবর্তী এক মাসে ১,৮০০ ডলার থেকে ১,৮৫০ ডলারের স্তরে ছুঁয়ে ফেলার সম্ভাবনা আছে। তার প্রভাব পড়বে ভারতীয় বাজারেও। পরবর্তী এক মাসে এমসিএক্স সূচকে ১০ গ্রাম সোনার দাম ৪৮,০০০ টাকা থেকে ৪৮,৫০০ টাকার কাছাকাছি পৌঁছে যেতে পারে।

একইসুরে গঙ্গানগর কমিউনিটি লিমিটেডের অমিত খাড়ে জানান, এমসিএক্স সূচকে ১০ গ্রাম ৪৫,০০০ টাকা থেকে ৪৬,০০০ টাকার মধ্যে থাকলে সোনার লগ্নিকারীরা ভালো সুযোগ পাবেন। যা রেকর্ড দরের থেকে ১০,০০০ টাকারও কম। আগামী তিন মাসে ১০ গ্রাম সোনার দাম ৪,০০০ থেকে ৫,০০০ টাকা বৃদ্ধি পেতে পারে।

বন্ধ করুন