বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > সোনা পড়ল ২,০০০ টাকা, রুপো কমল ৯,০০০ টাকা, কয়েক মাসে সর্বাধিক সাপ্তাহিক পতন
সোনা পড়ল ২,০০০ টাকা, রুপো কমল ৯,০০০ টাকা, কয়েক মাসে সর্বাধিক সাপ্তাহিক পতন (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য রয়টার্স)
সোনা পড়ল ২,০০০ টাকা, রুপো কমল ৯,০০০ টাকা, কয়েক মাসে সর্বাধিক সাপ্তাহিক পতন (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য রয়টার্স)

সোনা পড়ল ২,০০০ টাকা, রুপো কমল ৯,০০০ টাকা, কয়েক মাসে সর্বাধিক সাপ্তাহিক পতন

  • ভারতীয় বাজারে সোনার দাম আরও পড়তে পারে বলে ধারণা বিশেষজ্ঞদের।

কয়েক মাসের মধ্যে চলতি সপ্তাহে ভারতীয় বাজারে সর্বাধিক পড়ল সোনা ও রুপোর দাম। শুক্রবার এমসিএক্স সূচকে ১০ গ্রাম গোল্ড ফিউচার্সের দাম ২৩৮ টাকা কমে দাঁড়িয়েছে ৪৯,৬৬৬ টাকা। আর এক কেজির রুপোর দর এক শতাংশ পড়ে হয়েছে ৫৯,০১৮ টাকা। সাপ্তাহিক হিসাবে ভারতে ১০ গ্রাম সোনার দাম কমেছে ২,০০০ টাকা। রুপোর পতন প্রতি কেজিতে ৯,০০০ টাকা।

জিয়োজিৎ ফিনান্সিয়াল সার্ভিসের তরফে জানানো হয়েছে, সোনার দর যদি ৪৯,২৫০ টাকার নীচে নেমে যায়, তাহলে তা আবারও ৪৮,৮০০-৪৮,৯০০ টাকার আশপাশে পৌঁছে যেতে পারে। এমনকী তার নীচেও নেমে যেতে পারে হলুদ ধাতুর দর।

বিশ্ব বাজারেও হলুদ ধাতুর নিম্নগামী হওয়ার ছবিটা পালটায়নি। গত মার্চের পর থেকে সোনা ও রুপোর সর্বাধিক সাপ্তাহিক পতন হয়েছে। চলতি সপ্তাহেই সোনার দাম ৪.৬ শতাংশ পড়েছে। আর রুপোর পতন হয়েছে ১৫ শতাংশ। বিশেষজ্ঞদের মতে, আর্থিক বৃদ্ধি নিয়ে বিশ্বজুড়ে যে উদ্বেগ বাড়ছে, তাতে আবারও ঘুরে দাঁড়িয়েছে ডলার। তাতে ভর করেই সোনা ও রুপোর দাম হুড়মুড়িয়ে পড়ছে।

যদিও অনেক বিশেষজ্ঞের মতে, মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচন নিয়ে যে অনিশ্চয়তা তৈরি হয়েছে, তার জেরেও হলুদ ধাতুর গ্রাফ নিম্নমুখী হতে পারে। সেক্ষেত্রে সেই পতনের প্রভাব সাময়িকভাবে থাকতে পারে। পাশাপাশি অর্থনৈতিক ঝিমুনির মধ্যেই আঞ্চলিক উত্তেজনা বৃদ্ধি পাওয়ায় সোনার দাম নীচের দিকে থাকতে পারে বলে মত ওই বিশেষজ্রদের{

বন্ধ করুন