বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > আবারও কমে ৪৯,০০০ টাকার কাছে সোনা, পতন রুপোরও
বিশ্ব বাজারের রেশ ধরে ভারতীয় বাজারে কমল সোনা ও রুপোর দাম। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য রয়টার্স)
বিশ্ব বাজারের রেশ ধরে ভারতীয় বাজারে কমল সোনা ও রুপোর দাম। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য রয়টার্স)

আবারও কমে ৪৯,০০০ টাকার কাছে সোনা, পতন রুপোরও

  • সোমবার পতনের ফলে গত চারদিনের মধ্যে তৃতীয় দিন কমেছে সোনার দর।

বিশ্ব বাজারের রেশ ধরে সোমবার ভারতীয় বাজারেও কমল সোনা ও রুপোর দাম। এমসিএক্স সূচকে ১০ গ্রাম ফেব্রুয়ারি গোল্ড ফিউচার্সের দাম ০.৪ শতাংশ কমে দাঁড়িয়েছে ৪৯,১২৫ টাকা। এমসিএক্স সূচকে এক কিলোগ্রাম রুপোর দর ০.৪ শতাংশ কমে হয়েছে ৬৩,৪৭২ টাকা।

সোমবার পতনের ফলে গত চারদিনের মধ্যে তৃতীয় দিন কমেছে সোনার দর। গত সেশনে সোনার দর ০.৪ শতাংশ বেড়েছিল। গত সেশনে কমেছিল রুপোর দামও। সেই সেশনে ০.১ শতাংশ পতনের সাক্ষী ছিল রুপো।

বিশ্ব বাজারেও কমেছে কমেছে হলুদ ধাতুর দর। সোমবার থেকে আমেরিকা করোনাভাইরাস টিকা প্রদানের কর্মসূচি শুরু করতে চলায় লগ্নিকারীদের মধ্যে ঝুঁকির মাত্রা বেড়েছে। তার জেরে সোনা এই পতনের সাক্ষী থেকেছে বলে মত বিশেষজ্ঞদের। বিশ্ব বাজারে এক আউন্স স্পট গোল্ডের দাম ০.২ শতাংশ কমে হয়েছে ১,৮৩৪.৯৪ ডলার। মার্কিন আর্থিক প্যাকেজ সংক্রান্ত আশা এবং দুর্বল ডলারও সোনার দামে সহায়তা করেছে।

এদিকে, বিশ্বের বিভিন্ন কেন্দ্রীয় ব্যাঙ্কগুলি অর্থনীতিকে চাঙ্গা করতে বিভিন্ন সহায়তা প্রদান করতে থাকলেও করোনা টিকা এবং ঘুরে দাঁড়ানোর লক্ষণের প্রভাবে চাহিদা হ্রাস পাওয়ায় ২০১৮ সালের পর এই প্রথম কোনও ত্রৈমাসিকে ক্ষতির মুখে পড়তে চলেছে সোনা। কোটাক সিকিউরিটিজের তরফে একটি বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, একাধিক কারণে সোনার উত্থান-পতন জারি থাকবে। মার্কিন আর্থিক প্যাকেজ এবং করোনা টিকা নিয়ে আশা তৈরি হয়েছে, তার প্রভাবে হলুদ ধাতুর দাম একলাফে অনেকটা বাড়বে না বলেই মত কোটাক সিকিউরিটিজের।

বন্ধ করুন