বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > দু'দিনের সোনা পড়ল ২,৩৫০ টাকা, নামল ৪৯,০০০ টাকার নীচে, পতনের সাক্ষী রুপোও
দু'দিনের সোনা পড়ল ২,৩৫০ টাকা, নামল ৪৯,০০০ টাকার নীচে, পতনের সাক্ষী রুপোও। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য পিটিআই)
দু'দিনের সোনা পড়ল ২,৩৫০ টাকা, নামল ৪৯,০০০ টাকার নীচে, পতনের সাক্ষী রুপোও। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য পিটিআই)

দু'দিনের সোনা পড়ল ২,৩৫০ টাকা, নামল ৪৯,০০০ টাকার নীচে, পতনের সাক্ষী রুপোও

  • ভারতীয় বাজারে অব্যাহত থাকল সোনা ও রুপোর নিম্নমুখী প্রবণতা।

ভারতীয় বাজারে অব্যাহত থাকল সোনা ও রুপোর নিম্নমুখী প্রবণতা। সোমবার এমসিএক্স সূচকে ১০ গ্রাম ফেব্রুয়ারি গোল্ড ফিউচার্সের দাম ০.৪২ শতাংশ কমে দাঁড়িয়েছে ৪৮,৭৬০ টাকা। অন্যদিকে, এমসিএক্স সূচকে এক কেজি সিলভার ফিউচার্সের দাম ০.৫ শতাংশ কমে হয়েছে ৬৩,৯১৪ টাকা।

গত সেশনে ১০ গ্রাম সোনার দাম ২,০৫০ টাকা কমেছিল। আর গত দু'দিনে তা পড়েছে ২,৩৫০ টাকা। অন্যদিকে গত সেশনে এক কেজি রুপোর দাম কমেছিল ৬,১০০ টাকা। এসএমসি গ্লোবালের তরফে জানানো হয়েছে, ১০ গ্রাম সোনার দাম ৪৮,৫০০ টাকার গণ্ডি ছুঁতে পারে। তা সম্ভবত ৪৯,১০০ টাকার উপর উঠবে না।  আর এক কেজি রুপোর দাম ৬৩,৬০০ টাকার সীমানায় থাকতে পারে।

বিশ্ব বাজারে শক্তিশালী ডলারের মধ্যে সোনার দাম পতন জারি আছে। গত শুক্রবার ৩.৫ শতাংশ পতনের পর সোনার দাম আরও ০.৭ শতাংশ পড়েছে। তার ফলে এক আউন্স স্পট গোল্ডের দাম পড়ছে ১,৮৩৬.৩ ডলার। অন্যান্য ধাতুর মধ্যে রুপোর দাম পড়েছে ২.৪ শতাংশ। ২.৩ শতাংশ পতনের সাক্ষী থেকেছে প্ল্যাটিনাম।

গত বছর বিশ্ব বাজারে ২৫ শতাংশ বৃদ্ধি পাওয়ার পর বছরের গোড়াতেই সোনার দামে ব্যাপক হেরফের হয়েছে। জো বাইডেন প্রশাসনের তরফে কোনও আর্থিক প্যাকেজ ঘোষণা করা হবে বলে আশা করছেন লগ্নিকারীরা। তার ফলে সোনার মতো সম্পত্তির চাহিদা হ্রাস পেয়েছে। পরবর্তী মার্কিন প্রেসিডেন্ট বাইডেন জানিয়েছেন, করোনাভাইরাসের ফলে যে ধাক্কা খেয়েছে অর্থনীতি, তা থেকে ঘুরে দাঁড়ানোর জন্য চলতি সপ্তাহে আর্থিক প্যাকেজের প্রস্তাবের রূপরেখা তৈরি করবেন।

বন্ধ করুন