বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > একলাফে দাম বৃদ্ধির পর তেমন হেরফর নয় সোনার, ৭০,০০০ টাকার ঘরে রুপো
একলাফে দাম বৃদ্ধির পর তেমন হেরফর নয় সোনার, ৭০,০০০ টাকার ঘরে রুপো। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য রয়টার্স)
একলাফে দাম বৃদ্ধির পর তেমন হেরফর নয় সোনার, ৭০,০০০ টাকার ঘরে রুপো। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য রয়টার্স)

একলাফে দাম বৃদ্ধির পর তেমন হেরফর নয় সোনার, ৭০,০০০ টাকার ঘরে রুপো

  • গত সেশনে এক কেজি রুপোর দাম ১,৫০০ টাকা বেড়েছিল।

সোমবার একলাফে ভারতীয় বাজারে ৭০০ টাকা বেড়েছিল ১০ গ্রাম সোনার দাম। তারপর মঙ্গলবার ১০ গ্রাম হলুদ ধাতুর দাম ৪৬,৯৪৭ টাকায় মোটামুটি অটল থাকল। অন্যদিকে, উর্ধ্বমুখী ধারা বজায় রেখে এক কিলোগ্রাম রুপোর দাম জাঁড়িয়েছে ৭০,৫৯৮ টাকা। গত সেশনে এক কেজি রুপোর দাম ১,৫০০ টাকা বেড়েছিল।

মূল্যবৃদ্ধির আশঙ্কা এবং আমেরিকায় বড়সড় আর্থিক প্যাকেজের আশঙ্কায় গত সপ্তাহে বিশ্ব বাজারে সোনার দর দু'শতাংশ পড়েছিল। সেখান থেকে গত সেশনে ১.৫ শতাংশ বেড়েছিল হলুদ ধাতুর দর। সেই ধারা বজায় রেখে এক আউন্স স্পট গোল্ডের দাম ০.১ শতাংশ বেড়ে ১,৮০৯.৫৭ ডলার হয়েছে। ডলারের হেরফের না হওয়ার ফলেও সোনার দাম বৃদ্ধির পথ প্রশস্ত হয়েছে। তবে পড়েছে রুপোর দাম। এক আউন্স রুপোর দর ০.৪ শতাংশ কমে হয়েছে ২৮.০৪ ডলার।

জিয়োজিত্‍ ফিনান্সিয়াল সার্ভিসের তরফে জানানো হয়েছে, এক আউন্স সোনার দাম ১,৭৬০ ডলারে জোরদার সহায়তা পেলেও হলুদ ধাতুর লাগাতার বাড়তে পারে। আরও বেশি সহায়তা মিলবে ১,৮৭০ ডলার। তবে ১,৭৫৫ ডলারের নীচে গেলে তা গুরুতর বিক্রির চাপের প্রাথমিক ইঙ্গিত হিসেবে ধরা হবে। ঘরোয়া বাজারের দিক থেকে সংস্থার তরফে জানানো হয়েছে, বিশ্ব বাজারের প্রবণতা ধরেই ঘরোয়া বাজারে সোনার দামে হেরফের হচ্ছে। তবে দুর্বল দামের কারণে ভারতীয় বাজারে বেশি ক্রেতার কাছে সোনার আকর্ষণ বাড়বে। আরও আর্থিক প্যাকেজের আশা এবং চাহিদা বৃদ্ধি পাওয়ার আশায় হলুদ ধাতুর বড়সড় পতন আটকানো যাবে।

বন্ধ করুন