বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > রেকর্ডের থেকে ৯,০০০ টাকা কম থাকল সোনা, কখন কিনলে সবথেকে লাভ হবে?
বৃহস্পতিবার ভারতীয় বাজারে বাড়ল সোনার দাম। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য পিটিআই)
বৃহস্পতিবার ভারতীয় বাজারে বাড়ল সোনার দাম। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য পিটিআই)

রেকর্ডের থেকে ৯,০০০ টাকা কম থাকল সোনা, কখন কিনলে সবথেকে লাভ হবে?

  • বুধবার বাজার বন্ধের সময় ঊর্ধ্বমুখী প্রবণতা বজায় ছিল।

বৃহস্পতিবার ভারতীয় বাজারে বাড়ল সোনার দাম। এমসিএক্স সূচকে ১০ গ্রাম সোনার দাম ১২০ টাকা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৪৭,১২০ টাকা। বুধবারও বাজার বন্ধের সময় ঊর্ধ্বমুখী প্রবণতা বজায় ছিল। তাও রেকর্ড দরের (গত বছর অগস্টে ১০ গ্রামের দাম ৫৬,২০০ টাকা) তুলনায় এখনও প্রায় ৯,১০০ টাকা কম আছে সোনার দর।

আইআইএফএল সিকিউরিটিজের অনুজ গুপ্ত জানিয়েছেন, ঘরোয়া বাজারে ৪৬,৭০০ টাকায় সহায়তা পাচ্ছে ১০ গ্রাম সোনা। আর ৪৭,৫০০ টাকায় বাধা পাচ্ছে। কিন্তু তা একেবারেই স্বল্পকালীন ভিত্তিতে চলবে। সার্বিকভাবে সোনার দাম ইতিবাচক আছে। যখনই সোনার দাম পড়বে, তখনই হলুদ ধাতু কিনে নেওয়া ভালো। এমনকী অদূর ভবিষ্যতেই ১০ গ্রাম সোনার দাম ৪৮,০০০ টাকা ছুঁয়ে ফেলতে পারে।

তারইমধ্যে খুচরো ব্যবসায়ীদের উদ্ধৃত করে সংবাদসংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে, করোনাভাইরাস পরিস্থিতিতে বিধিনিষেধের কারণে ভারতে সোনার চাহিদা ধাক্কা খেয়েছে। স্থানীয় স্তরে বিধিনিষেধের জেরে আগামী কয়েক সপ্তাহে সোনার চাহিদা কম থাকবে বলে মত খুচরো ব্যবসায়ীদের। যদিও এখন দেশের বিভিন্ন প্রান্তে বিয়ের মরশুম চলছে। তা সত্ত্বেও চাহিদা বাড়বে না বলে ধারণা সংশ্লিষ্ট মহলের।

অন্যদিকে বিশ্ব বাজারে এক আউন্স সোনা ১,৮০০ ডলার থেকে ১,৮০৫ ডলারের স্তরে বাধা পাচ্ছে। বিশেষজ্ঞদের মতে, তৎক্ষণাৎ সহায়তা পাচ্ছে ১,৭৭০ ডলারের স্তরে। আপাতত সোনার নিম্নমুখী প্রবণতা বজায় থাকবে। তাই আপাতত হলুদ ধাতুর দাম তিন-চার শতাংশ পড়লেই সোনা কেনার পরামর্শ দিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা। 

বন্ধ করুন