বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > বড়সড় পতনের পরদিনও দুর্বল থাকল সোনা ও রুপো
বড়সড় পতনের পরদিন ভারতীয বাজারে তেমন হেরফের হল না সোনা ও রুপোর দামের। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য পিটিআই)
বড়সড় পতনের পরদিন ভারতীয বাজারে তেমন হেরফের হল না সোনা ও রুপোর দামের। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য পিটিআই)

বড়সড় পতনের পরদিনও দুর্বল থাকল সোনা ও রুপো

  • বিশ্ব বাজারের রেশ ধরে গত সেশনে সোনা এবং রুপোর দাম কমেছিল এক শতাংশের মতো।

বড়সড় পতনের পরদিন ভারতীয বাজারে তেমন হেরফের হল না সোনা ও রুপোর দামের। বুধবার এমসিএক্স সূচকে ১০ গ্রাম গোল্ড ফিউচার্সের দাম সামান্য বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৪৬,৯৮০ টাকা। অন্যদিকে, এক কিলোগ্রাম রুপোর দাম কমে ৬৪,৬৫৮ টাকায় ঠেকেছে।

বিশ্ব বাজারের রেশ ধরে গত সেশনে সোনা এবং রুপোর দাম কমেছিল এক শতাংশের মতো। শক্তিশালী ডলার এবং মার্কিন বন্ড ইয়েল্ডের প্রভাবও পড়েছিল সোনার উপর। এমনিতে গত বছর অগস্টে ১০ গ্রাম সোনার দাম রেকর্ড ৫৬,২০০ টাকায় পৌঁছে গিয়েছিল। পরে তা নিম্নমুখী হয়েছিল। তারইমধ্যে গত মাসের গোড়ার দিকে ১০ গ্রাম সোনার দাম ৪৫,৬০০ টাকায় পৌঁছে গিয়েছিল। যা চার মাসে সর্বনিম্ন ছিল। তারপর থেকে গত কয়েক সেশন ধরে দুর্বল থাকছে সোনা।

অন্যদিকে, বিশ্ব বাজারে সোনার দাম ১,৮০০ ডলারের গুরুত্বপূর্ণ স্তরের নীচে আছে। গত সেশনের এক আউন্স স্পট গোল্ডের দাম ১,৭৯১.৯ ডলারে নেমে গিয়েছিল। তারপর তেমন একটা হেরফের হয়নি। আজ এক আউন্স সোনার দাম ১,৭৯৬.০৩ ডলার দাঁড়িয়েছে। জিয়োজিত্‍ ফিনান্সিয়াল সার্ভিসের তরফে জানানো হয়েছে, যদি এক আউন্স সোনার দাম সরাসরি ১,৮৩৫ ডলারের উপরে চলে যায়, তাহলে সোনার দাম বাড়বে। মার্কিন ডলার সূচক বেড়ে ৯২.৫৪৩-তে ঠেকেছে। যা এক সপ্তাহে সর্বোচ্চ। তারইমধ্যে অন্যান্য মূল্যবান ধাতুর মধ্যে রুপো এবং হিরের দাম বেড়েছে। এক আউন্স রুপোর দাম ০.১ শতাংশ বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২৪.৩২ ডলার। জিয়োজিতের তরফে জানানো হয়েছে, যতক্ষণ রুপোর দাম ২৩.৭ ডলারের উপরে থাকছে, ততক্ষণ ঘুরে দাঁড়ানোর সম্ভাবনা আছে। একধাক্কায় সেই স্তরের নীচে নেমে গেলে দুর্বল হয়ে যাবে রুপো।

বন্ধ করুন