বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > মুখ্যমন্ত্রী সব জানেন! কেরলের CM-এর বিরুদ্ধে আঙুল তুললেন সোনা পাচারে অভিযুক্ত
কেরলের মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়ন (ANI) (HT_PRINT)

মুখ্যমন্ত্রী সব জানেন! কেরলের CM-এর বিরুদ্ধে আঙুল তুললেন সোনা পাচারে অভিযুক্ত

  • আমি সবকিছু বলতে পারছি না, তবে সুযোগ পেলে সব বলব। আমাকে ওরা খুন করতে পারে। সেকারণেই আমি আদালতকে সব জানাতে চাইছি। জানিয়েছেন অভিযুক্ত। মুখ্যমন্ত্রীর দফতর থেকে জানানো হয়েছে, সরকারই কেন্দ্রীয় এজেন্সির তদন্ত চেয়েছিল। একজন অভিযুক্তর এই সব অভিযোগ মানুষ প্রত্যাখ্যান করবেন।

সোনা পাচারচক্রে অন্যতম অভিযুক্ত স্বপ্না সুরেশ মঙ্গলবার কেরলের মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়ন ও তাঁর পরিবারের সদস্য, একাধিক আমলার বিরুদ্ধে গুরুতর অভিযোগ আনলেন। এদিকে দিন দুয়েক আগেই তিনি খুনের আশঙ্কা প্রকাশ করেছিলেন। এবার কোচিতে ম্যাজিস্ট্রেটের কাছে ১৬৪ সিআরপিসিতে স্টেটমেন্ট দিলেন তিনি। 

আদালত থেকে বের হওয়ার সময় তিনি বলেন, মুখ্যমন্ত্রী সব ব্যাপারে ওয়াকিবহাল। আমি আদালতে জানিয়েছি তার পরিবারের সদস্যদের ভূমিকা, আমলা এম শিবাশঙ্কর, নলিনী নেট্টো, প্রাক্তন মন্ত্রী কে টি জলিল, মুখ্যমন্ত্রীর ব্যক্তিগত সচিব সিএম রবীন্দ্রনের ভূমিকা।

তিনি বলেন, ২০১৬ সালে যখন মুখ্যমন্ত্রী আরব আমিরশাহিতে যাচ্ছিলেন তখনই ঘটনার শুরু। আমি তখন কনস্যুলেটের সচিব ছিলাম। মুখ্যসচিব জানিয়েছিলেন সিএম একটি ব্যাগ নিতে ভুলে গিয়েছেন। সেটা দুবাই আনতে হবে। এরপর একজন কূটনীতিককে দিয়ে সেটা দুবাই পাঠাই। তখন স্ক্যান করার সময় দেখা যায় ব্যাগ ভর্তি টাকা রয়েছে।

আমি সবকিছু বলতে পারছি না, তবে সুযোগ পেলে সব বলব। আমাকে ওরা খুন করতে পারে। সেকারণেই আমি আদালতকে সব জানাতে চাইছি। জানিয়েছেন অভিযুক্ত। এদিকে ১৬ মাস জেল খাটার পরে গত বছর নভেম্বরে তিনি জেলমুক্ত হন। ২০২০ সালে বাথরুমের ফিটিংসের মধ্যে ৩০ কেজি সোনা লুকিয়ে রাখার অভিযোগে সিবিআই তাকে গ্রেফতার করেছিল। গ্রেফতারের সময় তিনি সরকারি স্পেস পার্কে উপদেষ্টা হিসাবে কর্মরত ছিলেন। এরপর শিবাশঙ্করকেও ইডি গ্রেফতার করেছিল। 

অভিযোগ প্রসঙ্গে মুখ্যমন্ত্রীর দফতর থেকে জানানো হয়েছে, সরকারই কেন্দ্রীয় এজেন্সির তদন্ত চেয়েছিল। একজন অভিযুক্তর এই সব অভিযোগ মানুষ প্রত্যাখ্যান করবেন।

বন্ধ করুন