করোনা সংক্রমণ থেকে রক্ষা করতে ভোপালের জাহাঙ্গিরাবাদ এলাকার বাসিন্দাদের অন্যত্র সরিয়ে নিয়ে যাচ্ছে প্রশাসন। রবিবার পিটিআই-এর ছবি। (PTI)
করোনা সংক্রমণ থেকে রক্ষা করতে ভোপালের জাহাঙ্গিরাবাদ এলাকার বাসিন্দাদের অন্যত্র সরিয়ে নিয়ে যাচ্ছে প্রশাসন। রবিবার পিটিআই-এর ছবি। (PTI)

গোপনীয়তার নেই মালিকানা! সরকারি করোনা অ্যাপ থেকে ফাঁস কয়েক হাজার ব্যক্তিগত তথ্য

  • এক ফরাসি কম্পিউটার প্রোগ্রামার টুইট করে অ্যাপের কীর্তি জানানোর পরে বাধ্য হয়ে রবিবার তা বন্ধ করে প্রশাসন।

করোনা আক্রান্ত কোয়ারেন্টাইনে থাকা রোগীদের উপর নজর রাখার সরকারি অ্যাপ থেকে ফাঁস হয়ে গেল কয়েক হাজার নাগরিকের ব্যক্তিগত তথ্য। মধ্য প্রদেশ সরকারের ওই অ্যাপ ঘিরে শুরু হয়েছে তুমুল বিতর্ক।

এক ফরাসি কম্পিউটার প্রোগ্রামার টুইট করে অ্যাপের কীর্তি জানানোর পরে বাধ্য হয়ে রবিবার তা বন্ধ করে মধ্য প্রদেশ প্রশাসন। কিন্তু ততক্ষণে যা হওয়ার তা হয়ে গিয়েছে। 

জানা গিয়েছে, ডেটাবেসে কোয়ারেন্টাইনে থাকা নাগরিকদের নাম, তাঁদের সাম্প্রতিক ঠিকানা ও অবস্থান, এমনকি তাঁদের মোবাইল ফোনের ব্র্যান্ড ও মডেল নম্বরও ফাঁস হয়ে গিয়েছে। এই সমস্ত তথ্য ছাড়াও কোয়ারেন্টাইনে থাকা ব্যক্তিদের সম্পর্কে যাবতীয় তথ্য মধ্য প্রদেশ সরকারের ওয়েবসাইটে (mp.gov.in)ডাউনলোডও হয়ে গিয়েছে বলে জানা গিয়েছে। অ্যাপটি রবিবার বিকেলে বন্ধ করার আগে পর্যন্ত কমপক্ষে ৫,৪০০ জনের ব্যক্তিগত তথ্য সরকারের হেফাজতে চলে গিয়েছে। 

মধ্য প্রদেশ সরকারের প্রোমোশন অফ ইনফর্মেশন টেকনোলজি (MAP-IT) দফতরের সিইও নন্দ কুমারম জানিয়েছেন, সরকারি পোর্টালে এমন কিছু তথ্য জমা হয়েছে যা সেখানে থাকার কথা নয়। এই কারণে ওয়েবসাইটের ড্যাশবোর্ড সরিয়ে দিয়ে নতুন প্রযুক্তিগত পরিবর্তন আনা হচ্ছে, যাতে শুধুমাত্র ভারপ্রাপ্তরা ছাড়া কেউ সেই সমস্ত তথ্যের নাগাল না পান, জানিয়েছেন সিইও। 

জানা গিয়েছে, মধ্য প্রদেশ সরকারের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রকের অধীনস্থ সংস্থা MAP-IT হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকা ব্যক্তিদের উপরে নজর রাখতে 'সার্থক অ্যাপ ব্যবহার করে। ওই অ্যাপে জমা হওয়া সমস্ত তথ্য চূড়ান্ত গোপনীয় হিসেবে চিহ্নিত করার কথা। 

ব্যক্তিগত তথ্য ফাঁসের অভিযোগে কোণঠাসা MAP-IT সিইও জানিয়েছেন, ডেটাবেসে জমা পড়া নাম ও তথ্য আদৌ সংশ্লিষ্ট ব্যক্তি বিষয়ক কি না, তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। 

স্বাস্থ্য ও গোয়েন্দা দফতরের বিশেষজ্ঞরা অবশ্য বলছেন, ভারতীয় নাগরিকদের সম্পর্কে যাবতীয় গোপন তথ্যের নাগাল এক ফরাসি প্রযুক্তিবিদের অনায়াসলব্ধ হওার অর্থ, ব্যক্তিগত তথ্যের গোপনীয়তা রক্ষায় চূড়ান্ত ব্যর্থ হয়েছে প্রশাসন। এর জন্য মধ্য প্রদেশ সরকারের বিরুদ্ধে আদালতে বিশ্বাসভঙ্গের মামলা করা যায় বলে জানিয়েছেন অ্যাক্সেস নাও সংস্থার এশীয় নীতি বিভাগের অধিকর্তা রমনজিৎ সিং চিমা। 

উল্লেখ্য, গত ৮ এপ্রিল এক নির্দেশিকায় কেন্দ্রীয় সরকারের তরফে বলা হয়েছিল, কোয়ারেন্টাইনে থাকা ব্যক্তিদের ব্যক্তিদের কোনও মতেই চিহ্নিত করা চলবে না। সেই নির্দেশের যে কোনও ধারই ধারেনি শিবরাজ সিং চৌহানের নেতৃত্বাধীন বিজেপি সরকার, তা বোঝাই যাচ্ছে। 

বন্ধ করুন