বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > ‘নারীদের নিরাপত্তা দেওয়া আমাদের দায়িত্ব’, বিতর্কের মাঝে নির্দেশ প্রত্যাহার MU-র
মাইসোর বিশ্ববিদ্যালয়ের ফতোয়া ঘিরে বিতর্ক তৈরি হয় (ফাইল ছবি) (HT_PRINT)
মাইসোর বিশ্ববিদ্যালয়ের ফতোয়া ঘিরে বিতর্ক তৈরি হয় (ফাইল ছবি) (HT_PRINT)

‘নারীদের নিরাপত্তা দেওয়া আমাদের দায়িত্ব’, বিতর্কের মাঝে নির্দেশ প্রত্যাহার MU-র

  • ছাত্রীর উপর যৌন হেনসথার অভিযোগ ওঠার পরই মাইসোর বিশ্ববিদ্যালয় নির্দেশিকা জারি করে বলে যাতে সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার পর ছাত্রীরা একা বের না হয়।

ছাত্রীর উপর যৌন হেনসথার অভিযোগ ওঠার পরই মাইসোর বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের তরফে নির্দেশিকা জারি করে বলা হয়েছিল যাতে সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার পর ছাত্রীরা একা বের না হয়। এহেন নির্দেশিকায় চরম বিচর্ক সৃষ্টি হওয়ায় এবার সেই নির্দেশিকা প্রত্যাহার করতে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ দিলেন কর্ণাটকের উচ্চশিক্ষামন্ত্রী সিএন অশ্বথ নারায়ণ।

কর্ণাটকের উচ্চশিক্ষামন্ত্রী সিএন অশ্বথ নারায়ণ সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে বলেন, 'নারীদের স্বাধীনতা কোনও ভাবেই খর্ব করতে পারি না আমরা। বরং নারীদের জন্য নিরাপদ পরিবেশ তৈরি করা আমাদের দায়িত্ব।' পাশাপাশি তিনি আরও দাবি করেন যে প্রতিটি বিশ্ববিদ্যালয়কে আরও সুরক্ষিত করতে ক্যাম্পাসগুলিতে বেশি সংখ্যায় সিসিটিভি ক্যামেরা লাগানোর নির্দেশ দিয়েছেন তিনি।

উল্লেখ্য, এই ধর্ষণের ঘটনায় পরপর বিতর্কে বেশ অস্বস্তিতে কর্ণাটকের বিজেপি শাসিত সরকার। এর আগে গণধর্ষণের ঘটনায় বেফাঁস মন্তব্য করে বিরোধীদের রোষের মুখে পড়েন কর্ণাটকের নবনিযুক্ত স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আরাগা জ্ঞানেন্দ্র। জ্ঞানেন্দ্র বলেছিলেন, 'এত রাতে তাঁর (নির্যাতিতা) সেখানে যাওয়া উচিত হয়নি। এখন মানুষজন পুলিশকে দোষ দিচ্ছে সেই এলাকায় টহলদারী না করার জন্য।'

এরপরই পড়ুয়াদের উদ্দেশে একগুচ্ছ নির্দেশিকা জারি করে মাইসোর বিশ্ববিদ্যালয়। আর তারই একটি অংশে লেখা হয়, 'সন্ধ্যা সাড়ে ছটার পর ছাত্রীদের একা একা ক্যাম্পাসে বসে থাকা বা ঘোরাফেরা করা যাবে না।' এই নিয়েই শুরু হয় বিতর্ক।

বন্ধ করুন