বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > অপরিশোধিত পাম তেলের আমদানি শুল্ক হ্রাস কেন্দ্রের, দেশে কমতে পারে ভোজ্য তেলের দাম
ভারতের বাজারে বেড়ে চলেছে বিভিন্নরকম ভোজ্য তেলের দাম। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য হিন্দুস্তান টাইমস)

অপরিশোধিত পাম তেলের আমদানি শুল্ক হ্রাস কেন্দ্রের, দেশে কমতে পারে ভোজ্য তেলের দাম

  • ভারতের বাজারে বেড়ে চলেছে বিভিন্নরকম ভোজ্য তেলের দাম।

ভারতের বাজারে বেড়ে চলেছে বিভিন্নরকম ভোজ্য তেলের দাম। সেই পরিস্থিতিতে অপরিশোধিত পাম তেলের আমদানি শুল্ক কমিয়ে ১০ শতাংশ করল কেন্দ্র। আগে যা ১৫ শতাংশ ছিল। আগামী ৩০ জুন (বুধবার) থেকে সেই আমদানি শুল্ক ধার্য হবে। যা কার্যকর থাকবে আগামী ৩০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত।

মঙ্গলবার সেন্ট্রাল বোর্ড অফ ইনডিরেক্ট ট্যাক্সেস অ্যান্ড ট্যাক্সেসের তরফে বিবৃতি জারি করে জানানো হয়েছে, আগামী ৩০ জুন থেকে অপরিশোধিত পাম তেলের আমদানি শুল্ক কমিয়ে ১০ শতাংশ করা হচ্ছে। অপরিশোধিত পাম তেল ছাড়া অন্যান্য পাম তেলের আমদানি শুল্ক কমিয়ে ৩৭.৫ শতাংশ করার সিদ্ধান্ত হয়েছে। সলভেল্ট এক্সট্র্যাক্টর অ্যাসোসিয়েশন অফ ইন্ডিয়ার এগজিকিউটিভ ডিরেক্টর বিভি মেহতা জানান, কেন্দ্রের নয়া সিদ্ধান্তে আদতে পাম তেলের উপর থেকে আমদানি ৩৫.৭৫ শতাংশ থেকে কমে দাঁড়িয়েছে ৩০.২৫ শতাংশ। বিশেষজ্ঞদের মতে, সেই সিদ্ধান্তের ফলে আপাতত ভারতীয় বাজারে ভোজ্য তেলের দাম কমতে পারে। 

তবে সরষের তেল-সহ অন্যান্য ভোজ্য তেলের ক্ষেত্রে আমদানি শুল্ক হ্রাসের বিষয়ে কেন্দ্রের তরফে কোনও মন্তব্য করা হয়নি। সম্প্রতি অবশ্য অপরিশোধিত পাম তেল, অপরিশোধিত সয়াবিন তেলের আমদানিতে কর হ্রাস করেছিল কেন্দ্র।

উল্লেখ্য, চলতি মাসের গোড়ার দিকে কেন্দ্রের তরফে দাবি করা হয়, দেশে কমেছে ভোজ্য তেলের দাম। মন্ত্রকের তরফে বলা হয়েছে, ‘গত এক মাসে ভোজ্য তেলের দাম কমেছে। কয়েকটি ক্ষেত্রে দাম পড়েছে প্রায় ২০ শতাংশ পর্যন্ত।’ সঙ্গে যোগ করা হয়েছে, ‘বিভিন্ন জটিল বিষয়ের উপর ভোজ্য তেলের দাম নির্ভর করে। তার মধ্যে আছে - আন্তর্জাতিক বাজারের দর এবং ঘরোয়া উৎপাদন। দেশে উৎপাদন এবং চাহিদার মধ্যে যেহেতু বড়সড় ফারাক আছে, তাই ভোজ্য তেলের একটা বড় অংশ বিদেশ থেকে আমদানি করতে হয়।’

বন্ধ করুন