ভল্ডেমর্ট হ্যারিকে কখনও তার বাড়ির ভিতরে এসে আক্রমণ করেনি। লকডাউনের গুরুত্ব বোঝাতে এমনই টুইট করা হয়েছে।
ভল্ডেমর্ট হ্যারিকে কখনও তার বাড়ির ভিতরে এসে আক্রমণ করেনি। লকডাউনের গুরুত্ব বোঝাতে এমনই টুইট করা হয়েছে।

করোনা সংকটে মানুষকে ঘরবন্দি রাখতে হ্যারি পটারের শরণাপন্ন সরকার

  • লকডাউনে বাড়িতে থাকার প্রয়োজনীয়তা সম্পর্কে প্রচার করতে গিয়ে জে কে রাউলিং সৃষ্ট উপন্যাসের নায়ককেই বেছে নেওয়া হল।

করোনাভাইরাস সংক্রমণ রুখতে এবার হ্যারি পটারের শরণাপন্ন হল মহারাষ্ট্র সরকার। লকডাউনে বাড়িতে থাকার প্রয়োজনীয়তা সম্পর্কে প্রচার করতে গিয়ে জে কে রাউলিং সৃষ্ট উপন্যাসের নায়ককেই বেছে নেওয়া হল।

বুধবার টুইটারে কেন্দ্রীয় সরকারের প্রেস ইনফর্মেশন ব্যুরোর মহারাষ্ট্র শাখার তরফে ঘোষণা করা হয়েছে, ‘জানেন কি, কেন নিজের বাড়িতে সব সময় নিরাপদ থাকত হ্যারি পটার? হ্যাঁ, ভল্ডেমর্ট হ্যারিকে কখনও তার বাড়ির ভিতরে এসে আক্রমণ করেনি। জানেন কেন? আচ্ছা, সঠিক উত্তর জানতে হলে জিজ্ঞেস করে দেখুন কোনও হ্যারি পটার ফ্যানকে।’

বার্তার শেষে বিধিবদ্ধ সতর্কীকরণ হিসেবে লেখা হয়েছে, ’২১ দিনের লকডাউনে বাড়িতে থাকুন।’

বুধবার লকডাউনের অষ্টম দিনের সকালে দেশে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১,৬৩৭। ৩৮ জন সংক্রমণের জেরে মারা গিয়েছেন। সুস্থ হয়ে ফিরেছেন ১৩৩ জন।

মঙ্গলবার টেলিফোনে বিদেশমন্ত্রী এস জয়শংকরের সঙ্গে কথা হয় আমেরিকার স্বরাষ্ট্র সচিব মাইক পম্পিওর। করোনাভাইরাস সংক্রমণ রোধ করতে ঘনিষ্ঠ সহায়তা প্রয়োজন বলে জানিয়েছেন দুই দেশনেতাই।

বিশ্বে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৮ লাখ অতিক্রম করেছে। সংক্রমণে মারা গিয়েছেন ৪০,০০০ এর বেশি রোগী।

সবচেয়ে বেশি সংখ্যক রোগী, ১,৮৭,৯১৯ জন আমেরিকার নাগরিক। এরপরেই রয়েছে ইতালি, যেখানে সংক্রামিত হয়েছেন লক্ষ্যাধিক মানুষ। এ দিন হোয়াইট হাউসের তরফে জানানো হয়েছে, সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার নিয়মাবলী মানা হলেও আমেরিকায় সংক্রমণে মৃতের সংখ্যা পৌঁছতে পারে ১ থেকে ২.৪ লাখে।

বন্ধ করুন