বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > সাইরাস মিস্ত্রির মৃত্যুর জের, Amazon-এ এই জিনিসের বিক্রি বন্ধ করছে সরকার!
ছবি: আমাজন (Amazon)

সাইরাস মিস্ত্রির মৃত্যুর জের, Amazon-এ এই জিনিসের বিক্রি বন্ধ করছে সরকার!

Seatbelt Alert Stopper Banned: আমাজনে সিটবেল্ট অ্যালার্ম স্টপার বা ব্লকারের বিক্রি বন্ধের অনুরোধ করল কেন্দ্র সরকার। 

গাড়ির সিট বেল্ট অ্যালার্ম স্টপার বিক্রি করা যাবে না। ই-কমার্স সংস্থা আমাজনকে এমনই সুপারিশ করল কেন্দ্রীয় সরকার। রবিবার পথ দুর্ঘটনায় মৃত্যু হয় শিল্পপতি সাইরাস মিস্ত্রির। প্রাথমিক তদন্তে জানা যায়, মার্সিডিজের পেছনের সিটে বসেছিলেন তিনি। সিটবেল্ট লাগাননি। আর সেই কারণেই আঘাত আরও গুরুতর ছিল। এরপরেই এই বিষয়টি নিয়ে ভাবা শুরু করে কেন্দ্র সরকার। পরিবহণ মন্ত্রী নীতিন গড়করিও এই সম্পর্কে ভাবছেন বলে জানান। তিনি বলেন, সিটবেল্ট পরা নিয়ে সকলের একটি অনীহা রয়েছে। এমনকি এক মুখ্যমন্ত্রীর গাড়িতেও সিটবেল্ট স্টপার পেয়েছেন বলে জানান কেন্দ্রীয় মন্ত্রী। এরপরেই এমন সিটবেল্ট অ্যালার্ম স্টপার নিষিদ্ধ করার সিদ্ধান্ত নেন তিনি।

যেমন ভাবা তেমন কাজ। ইতিমধ্যেই এই বিষয়ে কেন্দ্রীয় পরিবহণ মন্ত্রক কাজ করছে বলে জানা গিয়েছে। খুব শীঘ্রই এই বিষয়ে নির্দেশিকা জারি হওয়ার কথা। তবে তার আগে থেকেই উদ্যোগী কেন্দ্র। আর তার অংশ হিসাবেই আমাজনে সিটবেল্ট অ্যালার্ম স্টপার বা ব্লকারের বিক্রি বন্ধ করার এই সুপারিশ।

সিটবেল্ট অ্যালার্ম স্টপার কী?

স্টপার জানার আগে, জানতে হবে সিটবেল্ট অ্যালার্মের বিষয়ে। বর্তমানে গাড়িতে সামনের সিটে দুই যাত্রীরই সিটবেল্ট বাঁধার নিয়ম। এটি সুনিশ্চিত করতে সরকারি নিয়ম মেনে গাড়ির সিট বেল্টে একটি অ্যালার্ম বা অ্যালার্ট বসায় নির্মাতা সংস্থাগুলি। যতক্ষণ না চালক ও তাঁর পাশে বসা যাত্রী, দু'জনেই সিটবেল্ট পরছেন, ততক্ষণ অ্যালার্ট থেকে 'কোঁ কোঁ' শব্দ বা, ভয়েস অ্যালার্ট লাগাতার বাজতে থাকে। এ পেছনে ভাবনা এই যে, এতে সতর্ক(বা বিরক্ত) হয়ে তাঁরা বেল্ট পরে নেবেন।

আর এই অ্যালার্ম এড়ানোর উপায়ই হল সিটবেল্ট ক্লিপ। সিটবেল্ট লাগানোর জায়গায় গুঁজে দিতে হয় এই ক্লিপগুলি। আর সেটা করেই সেন্সরকে ফাঁকি দেওয়া যায়। অ্যালার্ট বন্ধ হয়ে যায়। এটি ব্যবহার করে সিটবেল্ট পরাকে ফাঁকি দিচ্ছেন অনেকেই। অনলাইনে দেদার বিক্রি এই সিটবেল্ট ক্লিপের। তবে এবার তা বন্ধ করতে উদ্যোগী কেন্দ্র।

বন্ধ করুন