বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > এবার মোবাইলের মতো বিদ্যুতের সংযোগেও মিলবে 'পোর্ট' করার সুযোগ, শীঘ্রই আসছে বিল
কয়েকদিনের মধ্যেই ইলেকট্রিসিটি (সংশোধনী) বিল, ২০২১ পেশ হতে চলেছে মোদী মন্ত্রিসভায়।
কয়েকদিনের মধ্যেই ইলেকট্রিসিটি (সংশোধনী) বিল, ২০২১ পেশ হতে চলেছে মোদী মন্ত্রিসভায়।

এবার মোবাইলের মতো বিদ্যুতের সংযোগেও মিলবে 'পোর্ট' করার সুযোগ, শীঘ্রই আসছে বিল

  • কয়েকদিনের মধ্যেই ইলেকট্রিসিটি (সংশোধনী) বিল, ২০২১ পেশ হতে চলেছে মোদী মন্ত্রিসভায়।

কয়েকদিনের মধ্যেই ইলেকট্রিসিটি (সংশোধনী) বিল, ২০২১ পেশ হতে চলেছে মোদী মন্ত্রিসভায়। এমনই খবর প্রকাশ করা হয়েছে 'লাইভ হিন্দুস্তান'-এর তরফে। জানা গিয়েছে মন্ত্রিসভায় এই বিল পাশ হলে বিদ্যুৎ গ্রাহকরা বড় সুবিধা পেতে চলেছেন। মোবাইল সংযোগের মতো এরপর থেকে তাহলে বিদ্যুতের সংযোগও 'পোর্ট' করা যাবে। গ্রাহকদের কাছে আরও ভালো পরিষেবা পৌঁছে দিতেই এই নয়া বিল পেশ করা হতে পারে বলে জানানো হয়েছে লাইভ হিন্দুস্তানের রিপোর্টে। সরকারের আশা, এই বিল আইনে পরিণত হলে বিদ্যুৎ সংস্থাগুলির মধ্যে প্রতিযোগিতা বাড়বে, এর ফলে পরিষেবার মান আরও ভালো হবে।

এই বিষয়ে লাইভ হিন্দুস্তানকে একটি সরকারি সূত্র বলেছে, 'বিদ্যুৎ (সংশোধনী) বিল, ২০২১ আর কয়েকদিনের মধ্যে পেশ করা হবে কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভায়। সেখানেই এই বিল নিয়ে আলোচনা হবে এবং আশা করা হচ্ছে তা পাশ করানো হবে। চলতি বাদল অধিবেশনের মধ্যেই সংসদে এই বিলটি পেশ করিয়ে পাশ করানোর পরিকল্পনা রয়েছে কেন্দ্রীয় সরকারের।' উল্লেখ্য, ১৩ অগাস্ট পর্যন্ত চলবে বাদল অধিবেশন। এই সময়ের মধ্যে লোকসভায় মোট ১৭টি বিল পাশ করানোর পরিকল্পনা নিয়েছিল কেন্দ্র। তবে পেগাসাস সহ একাধিক ইস্যুতে সংসদ উত্তাল। এর জন্যে প্রায় প্রতিটি কার্য দিবসেই অধিবেশন শুরু হতেই তা মুলতুবি করা হচ্ছে।

জানা গিয়েছে প্রস্তাবিত এই সংশোধিত বিদ্যুৎ বিলে এই খাত থেকে লাইসেন্সিংয়ের বিষয়টি তুলে দেওয়া হবে। এদিকে রাজ্যগুলি এই বিল নিয়ে অখুশি। গত বছরই এই বিলের খসড়া পড়ার পর প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে চিঠি লিখেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। মমতার অভিযোগ ছিল, রাজ্যের ক্ষমতা খর্ব করতেই এই বিল আনছে কেন্দ্র। কারণ এই বিলে উল্লেখ করা ছিল যে বিদ্যুৎ পরিবহণ এবং ক্রয় বিক্রয় সংক্রান্ত ক্ষেত্র বিবেচনা করবে ইলেক্ট্রিসিটি কন্ট্রাক্ট এনফোর্সমেন্ট অথরিটি। বিদ্যুৎ বণ্টন করা হবে ফ্র্যাঞ্চাইজির মাধ্যমে। পাশাপাশি এই বিল পাশ করিয়ে কেন্দ্রীয় সরকার সরাসরি বিদ্যুতের ভর্তুকির টাকা গ্রাহকদের অ্যাকাউন্টে দিতে চাইছে।

 

বন্ধ করুন