বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > কোভিডে জারি মৃত্যু মিছিল! ক্ষতিপূরণের দাবিতে সরকারকে চিঠি কেন্দ্রীয় সচিবদের
প্রতীকী ছবি (সৌজন্যে অরবিন্দ যাদব/হিন্দুস্তান টাইমস) (Arvind Yadav/HT PHOTO)
প্রতীকী ছবি (সৌজন্যে অরবিন্দ যাদব/হিন্দুস্তান টাইমস) (Arvind Yadav/HT PHOTO)

কোভিডে জারি মৃত্যু মিছিল! ক্ষতিপূরণের দাবিতে সরকারকে চিঠি কেন্দ্রীয় সচিবদের

  • সেন্ট্রাল সেক্রেটারিয়েট সার্ভিসেস ফোরামের তথ্য অনুযায়ী, বিভিন্ন মন্ত্রকে কাজ করা ৬০ জন আধিকারিক করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ের সময় প্রাণ হারিয়েছেন।

কোভিডে মৃত সরকারী কর্মীদের পরিবারকে ১ কোটি টাকা করে এক্স গ্রাশিয়া দেওয়া হোক। কেন্দ্রীয় সচিব পর্যায়ের আধিকারিকদের এক ফোরাম এই দাবি করেছে কেন্দ্রীয় সরকারের কাছে। তাদের আরও দাবি, মৃত কর্মীর উপর নির্ভরশীল পরিবারকে চাকরি দেওয়ার ক্ষেত্রে আরও নমনীয় হতে হবে কেন্দ্রকে। কোনও বিলম্ব না করেই যেন চাকরি দেওয়া হয় মৃত কর্মীর পরিবারের সদস্যকে।

সেন্ট্রাল সেক্রেটারিয়েট সার্ভিসেস ফোরামের তথ্য অনুযায়ী, বিভিন্ন মন্ত্রকের বিভিন্ন দপ্তরে কাজ করা ৬০ জন আধিকারিক করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ের সময় প্রাণ হারিয়েছেন। সেন্ট্রাল বোর্ড অফ ডিরেক্ট ট্যাক্সে কর্মরত ১১৯ জন আধিকারিক প্রাণ হারিয়েছেন কোভিডে। সেন্ট্রাল বোর্ড অফ ইনডিরেক্ট ট্যাক্সের ক্ষেত্রে সংখ্যাটা ১১০। কেন্দ্রীয় সরকারের এই কর্মীদের পরিবারকে যাতে ১ কোটি টাকা এক্স গ্রাশিয়া দেওয়া হয়। সেই দাবি তুলেছে সেন্ট্রাল সেক্রেটারিয়েট সার্ভিসেস ফোরাম। পাশাপাশি ভবিষ্যতে কেউ প্রাণ হারালেও এই সুযোগ, সুবিধা দেওয়ার দাবি জানানো হয়েছে।

এই দাবি জানিয়ে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী জিতেন্দ্র সিংকে চিঠি লিখেছেন ফোরামের সদস্যরা। তাতে লেখা, 'সরকারি হিসেব বলছে দেশে ২১ ঊর্ধ্বদের মধ্যে মাত্র ০.০৩ শতাংশ মানুষের মৃত্যু হয়েছে করোনায়। তবে সেন্ট্রাল সেক্রেটারিয়েট সার্ভিসেসের অধীনে কর্মরত ০.৬ শতাংশ কর্মীর মৃত্যু হয়েছে করোনায়। জাতীয় গড়ের থেকে তা ২০ গুণ বেশি।'

এদিকে শুধু কেন্দ্রীয় সরকারে কর্মরত সচিবরা নন, করোনায় মৃতদের পরিবারকে সুযোগ, সুবিধা দেওয়ার দাবি তুলেছে সর্বভারতীয় ব্যাঙ্কিং কর্মীদের সংগঠনও। তাঁদের দাবি, মৃতদের পরিবারকে ক্ষতিপূরণ যাতে যত সম্ভব তাড়াতাড়ি দেওয়া হয়। সর্বভারতীয় ব্যাঙ্কিং কর্মীদের সংগঠনের সাধারণ সচিম সিএইচ ভেঙ্কটচলম দাবি করেন, করোনায় এখনও পর্যন্ত দেশজুড়ে প্রাণ হারিয়েছেন ১৪০০ জন কর্মী। তাঁর অভিযোগ, মৃতদের পরিবারকে ২০ লক্ষ টাকা করে ক্ষতিপূরণ দেওয়ার কথা ঘোষণা করা হলেও, তা সঠিক ভাবে দেওয়া হচ্ছে না সব ক্ষেত্রে। পাশাপাশি তাঁর দাবি, ব্যাঙ্ক কর্মীদের অবিলম্বে ফ্রন্টলাইন কর্মী ঘোষণা করে তাঁদের টিকা দেওয়া হোক।

বন্ধ করুন