বাড়ি > ঘরে বাইরে > ESIC scheme- লকডাউনে চাকরি হারানো শিল্প শ্রমিকদের জন্য বেকার ভাতা দেবে কেন্দ্রীয় সরকার
সিদ্ধান্ত নিলেন সন্তোষ গাঙ্গওয়ার 
সিদ্ধান্ত নিলেন সন্তোষ গাঙ্গওয়ার 

ESIC scheme- লকডাউনে চাকরি হারানো শিল্প শ্রমিকদের জন্য বেকার ভাতা দেবে কেন্দ্রীয় সরকার

উপকৃত হবেন প্রায় ৪০ লাখ মানুষ। 

প্রায় ৪০ লক্ষ শ্রমিককে বেকারত্ব ভাতা দিতে চলেছে কেন্দ্র। এই সংক্রান্ত নিয়ম শিথিল করা হয়েছে যাতে তাদের তিন মাসের মাইনের ৫০ শতাংশ দেওয়া যায় বেকারত্ব ভাতা হিসাবে। ২৪ মার্চ ও ৩১ ডিসেম্বর ২০২০-র মধ্যে চাকরি হারানো বা সম্ভাব্য চাকরি হারানোর ক্ষেত্রে এই ভাতা দেওয়ার কথা ঠিক হয়েছে। 

কেন্দ্রীয় শ্রমমন্ত্রী সন্তোষ গাঙ্গওয়ারের পৌরহিত্যে  Employees State Insurance Corporation (ESIC) বোর্ডের বৈঠকে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। এতে মোট ৪১ লাখ শ্রমিক উপকৃত হবেন। 

ESIC-র বোর্ড সদস্য অমরজিৎ কৌর বলেন যে শেষ তিন মাসের গড় মাইনের ৫০ শতাংশ দেওয়া হবে। তবে তিনি আক্ষেপ করেন যে কারা এই লাভ পাবেন, সেই মাপকাঠি আরেকটু শিথিল করলে প্রায় ৭৫ লক্ষ শ্রমিক উপকৃত হতে পারতেন। 

যে সব শ্রমিকরা মাসে ২১ হাজার টাকার কম রোজগার করেন তারা  ESIC স্কিমের অন্তর্ভুক্ত। প্রতি মাসে তাদের মাইনের একটি অংশ কেটে এই স্কিমে যুক্ত হয়, যেখানে থেকে অসুস্থ হলে স্বাস্থ্য সুবিধা মেলে। এই কর্মীদের আইপি বলা হয়। বর্তমানে আইপি-রা নিজেদের বেসিকের ০.৭৫ শতাংশ কাটান এই খাতে। যে সংস্থায় তারা কর্মরত, তারা দেয় ৩.২৫ শতাংশ। 

এবার থেকে ঠিক হয়েছে, আইপিরা কোনও ক্লেম করলে সেটা তাঁর চাকুরিদাতার থেকে আসার প্রয়োজন নেই। পরে শুধু ইএসআইসি ব্রাঞ্চ অফিসে ক্লেম ভেরিফাই করে নেওয়া যেতে পারে চাকুরিদাতার সঙ্গে যোগাযোগ করে। 

যে কোনও ক্লেমের জন্য আধার লাগবে ভেরিফিকেশনের জন্য,। অটল বিমিত ব্যক্তি কল্যান যোজনার আওতায় এই টাকা দেওয়া হবে। কোনও শিল্পের সঙ্গে যুক্ত কর্মী যদি দুই বছর ইএসআই স্কিমের আওতায় থেকে থাকে ও চাকরি হারানোর আগে ছয় মাস এই তহবিলে টাকা জমা করে থাকে, ও অন্তত ছয় মাস টাকা জমা করে তার আগের দুই বছরে, তাহলে সে এই বেকারত্ব ভাতা পাবেন চাকরি হারানো শ্রমিকরা। 

 এই মুহূর্তে প্রায় ৮০ লাখ কর্মী ইএসআইসি স্কিমের সঙ্গে যুক্ত আছেন ও বর্তমানে চাকরি হারিয়েছেন। তাদের প্রায় ৫০ শতাংশ লাভবান হবেন সরকারের এই সিদ্ধান্তে। 

বন্ধ করুন