বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > Marriage in Uttar Pradesh: দশ টাকার ৩০টি নোট গুনতে ব্যর্থ হয়েছিলেন হবু বর, বিয়েই বাতিল করে দিলেন কনে

Marriage in Uttar Pradesh: দশ টাকার ৩০টি নোট গুনতে ব্যর্থ হয়েছিলেন হবু বর, বিয়েই বাতিল করে দিলেন কনে

বিয়ে বাতিল করলেন কনে। প্রতীকী ছবি

পুরোহিতের সন্দেহ ছিল বর মানসিক ভারসাম্যহীন। সেই সন্দেহের কথা তিনি কনের পরিবারকে জানান। এরপর বর আদৌ মানসিক ভারসাম্যহীন কিনা তা জানতে বরকে পরীক্ষা করার সিদ্ধান্ত নেন কনের পরিবার। এর জন্য তাঁরা বরকে ১০ টাকার ৩০টি নোট গুনতে দেন। কিন্তু, বর নোট গুনতে ব্যর্থ হওয়ায় হতবাক হয়ে যান কনের পরিবার।

টাকা গুনতে পারেননি হবু বর। শুধুমাত্র সেই কারণেই বিয়ে বাতিল করে দিলেন কনে। এমনই ঘটনার সাক্ষী থাকল উত্তরপ্রদেশের ফারুখাবাদ জেলা। বিয়ে বাতিলের পরে শুরু হয় দুপক্ষের মধ্যে তুমুল বাতবিতণ্ডা। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছয় পুলিশ। তারা দু’পক্ষের মধ্যে সমস্যাটি মিটমাট করার চেষ্টা করে। কিন্তু, কোনওভাবে কনে বিয়ে করতে রাজি হননি। ফলে বাধ্য হয়েই খালি হাতে ফিরে যেতে হয় বরকে।

কী ঘটেছিল?

জানা গিয়েছে, পুরোহিতের সন্দেহ ছিল বর মানসিক ভারসাম্যহীন। সেই সন্দেহের কথা তিনি কনের পরিবারকে জানান। এরপর বর আদৌও মানসিক ভারসাম্যহীন কিনা তা জানতে বরকে পরীক্ষা করার সিদ্ধান্ত নেন কনের পরিবার। এর জন্য তাঁরা বরকে ১০ টাকার ৩০টি নোট গুনতে দেন। কিন্তু, বর নোট গুনতে ব্যর্থ হওয়ায় হতবাক হয়ে যান কনের পরিবার। এরপরে বিয়ের মঞ্চ থেকে উঠে পড়েন কনে। তিনি আর বিয়ে করতে রাজি হননি।

কনের ভাই মোহিত জানান, ‘একজন নিকটাত্মীয় বর ঠিক করেছিলেন। ওই আত্মীয়র ওপর ভরসা থাকায় তাঁর বিয়ের আগে বরকেও দেখেননি। তবে বিয়ের অনুষ্ঠানে পুরোহিত বরের আচরণ দেখে সন্দেহ করেন এবং আমাদের বিষয়টি জানান। সেই কারণে বর স্বাভাবিক কিনা তা জানার জন্য আমরা তাঁকে একটি সহজ পরীক্ষা করেছিলাম। আমি তাঁকে মোট ৩০টি ১০ টাকার নোট গুনতে বলেছিলাম। কিন্তু, উনি গুনতে পারেননি তাই আমার বোন তাকে বিয়ে করতে অস্বীকার করে।’ এদিকে, বিয়ে বন্ধের পর বর-কনের পরিবারের মধ্যে তুমুল তর্কাতর্কি হয়। কিন্তু, কোনওভাবেই কনে এবং তাঁর পরিবারকে বিয়েতে রাজি করাতে পারেনি বরের পরিবার। শেষমেষ তাঁদের খালি হাতেই ফিরতে হয়।

এই খবরটি আপনি পড়তে পারেন HT App থেকেও। এবার HT App বাংলায়। HT App ডাউনলোড করার লিঙ্ক https://htipad.onelink.me/277p/p7me4aup

বন্ধ করুন