বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > শীঘ্রই ভারতে শুরু হতে পারে শিশুদের টিকাকরণ, কাদের দেওয়া হবে? তৈরি হচ্ছে তালিকা
ফাইল ছবি : এএনআই (Vijay Bate/ANI)
ফাইল ছবি : এএনআই (Vijay Bate/ANI)

শীঘ্রই ভারতে শুরু হতে পারে শিশুদের টিকাকরণ, কাদের দেওয়া হবে? তৈরি হচ্ছে তালিকা

এ বিষয়ে অন্তিম স্তরের কিছু কাজ চলছে বলে জানা গিয়েছে।

শীঘ্রই শিশুদের কোভিড টিকাকরণের নির্দেশিকা জারি হতে পারে। আপাতত কোমর্বিডিটির তালিকা তৈরি করছে কেন্দ্রীয় বিশেষজ্ঞ কমিটি। অর্থাত্ যে শিশুদের গুরুতর অসুস্থতা রয়েছে, এবং যাদের করোনা হলে ঝুঁকি বেশি, তাদের আগে টিকা দেওয়া হবে।

'এই প্রোগ্রামে শিশুদের কীভাবে সবচেয়ে ভালো পন্থায় (কোভিড-১৯) টিকা দেওয়া যায়, তা নিয়ে আলোচনা হচ্ছে। এর জন্য বেশ কয়েকজন শীর্ষস্থানীয় বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নেওয়া হচ্ছে। শিশুদের স্বাস্থ্যের প্রশ্ন এটি। তাই এটি নিয়ে পুঙ্খানুপুঙ্খ যাচাই করা হচ্ছে,' জানালেন নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক কেন্দ্রীয় সরকারি আধিকারিক। 'নির্দিষ্ট কোমর্বিডিটি সংক্রান্ত নির্দেশিকা এবং অন্যান্য পদ্ধতিগত নির্দেশিকা শীঘ্রই প্রকাশিত হওয়ার কথা,' বলেন তিনি।

নভেম্বরেই শিশুদের কোভিড-১৯ টিকাদান শুরু হতে পারে। প্রাথমিকভাবে ১২ বছর ও তার বেশি বয়সিদের টিকা দেওয়া হতে পারে। দেশের প্রাপ্তবয়স্ক জনসংখ্যার ক্ষেত্রে যেভাবে প্রথমে কোমর্বিডিটিতে অগ্রাধিকার দেওয়া হয়েছিল, এক্ষেত্রেও সেরকম হওয়ার সম্ভাবনা বেশি।কোমর্বিডিটি তালিকায় সব ধরনের ক্যানসার, জন্মগত হৃদরোগ, দীর্ঘস্থায়ী লিভার এবং কিডনির রোগ এবং ফুসফুস সংক্রান্ত অসুস্থতা থাকতে পারে। যে সকল শিশুর অঙ্গ প্রতিস্থাপন করা হয়েছে তাদেরও অগ্রাধিকার দেওয়া হবে।

Zydus Healthcare-এর Covid-19 টিকা, ZyCoV-D ইতিমধ্যে জরুরি ব্যবহারের অনুমোদন পেয়েছে। ১২ বছর বা তার বেশি বয়সিদের উপর এটি সফলভাবে পরীক্ষা করা হয়েছে। 'জাতীয় ওষুধ নিয়ন্ত্রক শিশুদের উপর কোভ্যাক্সিনের জরুরি ব্যবহারের অনুমোদনের আগে ডেটা বিশ্লেষণ করছে,' মঙ্গলবার জানান কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী মনসুখ মান্ডবিয়া। যদিও কেন্দ্রীয় ওষুধের মান নিয়ন্ত্রণ সংস্থার (CDSCO) একটি বিশেষজ্ঞ কমিটি দুই সপ্তাহ আগেই শিশুদের ক্ষেত্রে এটির ব্যবহারের সুপারিশ করেছে।

'এটি একটি সংবেদনশীল বিষয়। কারণ এটি শিশুদের সঙ্গে সম্পর্কিত। তাই, সরকার শুরু থেকেই এই বিষয়ে সিদ্ধান্ত গ্রহণে হস্তক্ষেপ করবে না বলে স্পষ্ট করে দিয়েছে। বিশেষজ্ঞদের এটি পরিচালনা করতে দিন,' জানান কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী।

বন্ধ করুন