বাড়ি > ঘরে বাইরে > মৎসজীবী হত্যা কাণ্ডে ক্ষতিপূরণ পাবে ভারত, ফেরাতে পারবে না ইতালীয়দের, রায় আদালতের
অভিযুক্ত দুই মেরিন (REUTERS)
অভিযুক্ত দুই মেরিন (REUTERS)

মৎসজীবী হত্যা কাণ্ডে ক্ষতিপূরণ পাবে ভারত, ফেরাতে পারবে না ইতালীয়দের, রায় আদালতের

২০১২ সালে ইতালীয় মেরিনদের হাতে খুন হয়েছিলেন দুই ভারতীয় মৎসজীবী। 

ইতালীয় মেরিন মামলায় বড় ধাক্কা খেল ভারত। দুই ইতালীয় মেরিন যারা ভারতীয় মৎসজীবীদের হত্যা করেছিল ২০১২ সালে বলে অভিযোগ, তাদের ফেরাতে পারবে না ভারত। একই সঙ্গে ভারতে চলা মামলাও গুটিয়ে ফেলতে হবে। নেদারল্যান্ডের হেগ শহরে অবস্থিত পার্মানেন্ট কোর্ট অফ আর্বিট্রেশন এই রায় দিয়েছে। 

এদিন সংখ্যাগরিষ্ঠ (৩-২) রায়ে আদালত বলে যে ভারতে হবে না এই দুই মেরিনের মামলা। ভারতীয় আইন থেকে এই মেরিনদের ইম্যুনিটি আছে বলেই জানায় আদালত। ইতালি প্রথম থেকেই বলেছে যে যেহেতু তারা সরকারি কর্মচারি ছিল ও সেই হিসাবেই ব্যবস্থা নিয়েছিল, তাই তাদের বিচার সেই দেশেই হওয়া উচিত। সেই যুক্তি মেনে নিয়েছে আদালত।

এদিন আদালত ৩-২ রায়ে এটাও বলে যে ভারতে মামলা বন্ধ করতে হবে। ইতালিকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে যে এদের বিরুদ্ধে তদন্ত করতে। একই সঙ্গে ভারতকে প্রাণ ও বস্তু হানি ও নৈতিক ক্ষয়ক্ষতির জন্যেও টাকা দিতে নির্দেশ দিয়েছে আদালত। তবে ক্ষতিপূরণের অর্থ দুই দেশকে ঠিক করে নিতে বলা হয়েছে। 

সালভাতোর গিরোন ও মাসিমিলিয়ানো লাতোরের বিরুদ্ধে অভিযোগ তারা দুই মৎসজীবীকে হত্যা করেন। এদের গ্রেফতার করে ভারত। এর বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক আদালতে যায় ইতালি। সেন্ট অ্যান্টনি নামের মাছ ধরার জাহাজের দুই সদস্য অজেশ বিঙ্কি ও ভ্যালেন্টাইন জ্যালেন্টাইনকে হত্যা করার অভিযোগ ইতালীয় মেরিনদের বিরুদ্ধে। 

একটি ইতালীয় বাণিজ্যিক জাহাজের নিরাপত্তার দায়িত্বে ছিলেন এই দুই অভিযুক্ত মেরিন। সেন্ট অ্যান্টনিকে দেখে তারা জলদস্যুদের নৌকা বলে ভুল করেছিলেন। সতর্ক করার জন্য গুলি চালাতে গিয়ে মারা যায় এই দুই ভারতীয় মৎসজীবী। বহুদিন জেলে থাকার পর সুপ্রিম কোর্টে আলাদা আলাদা জামিন পেয়ে বাড়ি যান এই দুই ব্যক্তি।  

ইতালির দাবি যে মেরিনদের আটকে রাখার জন্য ক্ষতিপূরণ দিক ভারত, তা সর্বসম্মত ভাবে খারিজ করে দিয়েছে হেগের আদালত। দুই দেশের মধ্যে সম্পর্ত কার্যত তলানিতে চলে যায় এই ঘটনার পরে। এবার ফের মাথা চাড়া দিয়ে উঠল এই বিতর্ক। 

ট্রীইবুন্যালের রায়ে স্বাভাবিক ভাবেই খুশি ইতালি। তাদের যুক্তি আদালত মেনে নিয়েছে এই কথা বলে ইতালির বিদেশমন্ত্রক বলেছে যে তারা এই বিষয় ভারতের সঙ্গে একযোগে কাজ করতে প্রস্তুত। একই সঙ্গে তারা বলে যে মেরিনরা দোষী কিনা, সেটা নিয়ে   আদালত কিছু বলেনি। সেটা এখন ইতালির আদালতে শুধু নির্ধারিত হবে ও ইতিমধ্যেই তদন্ত শুরু হয়েছে। 

ভারতের বিদেশমন্ত্রকের মুখপাত্র অনুরাগ শ্রীবাস্তব এটা মেনে নেন যে মেরিনরা ইম্যুনিটি পেয়ে গেছেন। অর্থাত্ আইনি রক্ষাকবচ তাদের আছে এবং ভারতে আর তাদের ফেরানো যাবে না। তবে ইতালির ক্ষতিপূরণের দাবি যে ট্রাইব্যুনাল খারিজ করেছে সেটা তুলে ধরেন তিনি। তিনি বলেন যে এই সংক্রান্ত রায়টি সম্বন্ধে অবহিত ভারত ও সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদের সঙ্গে শীঘ্রই যোগাযোগ করা হবে। 

 

 

 

 

 

 

 

বন্ধ করুন