বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > পরকীয়া ফাঁসের ভয়ে দাদাশ্বশুর ও ননদকে খুন, প্রেমিকের সঙ্গে গ্রেফতার বধূ
প্রেমিকের সাহায্যে দাদাশ্বশুর ও ননদকে খুনের দায়ে অভিযুক্ত হলেন হরিদ্বারবাসী বধূ। (প্রতীকী ছবি)
প্রেমিকের সাহায্যে দাদাশ্বশুর ও ননদকে খুনের দায়ে অভিযুক্ত হলেন হরিদ্বারবাসী বধূ। (প্রতীকী ছবি)

পরকীয়া ফাঁসের ভয়ে দাদাশ্বশুর ও ননদকে খুন, প্রেমিকের সঙ্গে গ্রেফতার বধূ

  • বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্কের কথা ফাঁস করে দেন, এই ভেবে তাঁকে হত্যার পরিকল্পনা করে রিয়া। একই কারণে রিয়ার ননদ প্রীতিকেও হত্যা করে যুগল।

পরকীয়ার কথা জেনে ফেলায় প্রতিবেশী প্রেমিকের সাহায্যে দাদাশ্বশুর ও ননদকে খুনের দায়ে অভিযুক্ত হলেন হরিদ্বারবাসী বধূ। 

পুলিশ জানিয়েছে, দুই অভিযুক্ত রোহিত ও রিয়া হরিদ্বার জেলার মানকপুর-আদমপুর গ্রামের বাসিন্দা। বিবাহিত রিয়া বেশ কয়েক মাস ধরেই প্রতিবেশী যুবক রোহিতের সঙ্গে ঘনিষ্ঠ সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েন। 

শ্বশুরবাড়ির সদস্যদের চোখে ধুলো দিতে তাঁদের অজান্তে প্রায়ই খাবারে ঘুমের ওষুধ মেশাতেন রিয়া। তাঁরা ঘুমে অচেতন হলে চুপিসাড়ে বাড়িতে ঢুকতেন রোহিত। গত ২ নভেম্বর রাতে এমনই অভিসার সেরে রিয়ার ঘর থেকে রোহিতকে বেরোতে দেখে ফেলেন দাদাশ্বশুর। 

পাছে বৃদ্ধ তাঁর বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্কের কথা ফাঁস করে দেন, এই ভেবে তাঁকে হত্যার পরিকল্পনা করেন রিয়া। প্রেমিক রোহিতের সাহায্যে বালিশ চাপা দিয়ে শ্বাসরোধ করে খুন করেন দাদাশ্বশুরকে। একই কারণে ৫ নভেম্বর রিয়ার ননদ প্রীতিকেও হত্যা করে যুগল। 

প্রসঙ্গত, প্রায় তিন বছর আগে মানকপুর-আদমপুর গ্রামের সূরয কুমারের সঙ্গে বিয়ে হয় রিয়ার। কর্মসূত্রে স্বামী বাড়ির বাইরে থাকলে প্রতিবেশী রোহিতের সঙ্গে প্রেমের সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েন বধূ। 

পুলিশের দাবি, শুধু এই দুজনই নয়, স্বামী ও শাশুড়িকেও ত্যার পরিকল্পনা ছিল রিয়া ও রোহিতের। অভিযুক্ত যুগলকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

বন্ধ করুন