বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > হরিদ্বারের ‘ধর্ম সংসদ’ কাণ্ডে তদন্ত চেয়ে মামলা, আবেদন গৃহীত সুপ্রিম কোর্টের
স্বামী যতি নরসিংহনন্দ বক্তব্য রাখছেন হরিদ্বারে ( রমেশ্বর গৌর/HT Photo)

হরিদ্বারের ‘ধর্ম সংসদ’ কাণ্ডে তদন্ত চেয়ে মামলা, আবেদন গৃহীত সুপ্রিম কোর্টের

  • হাই কোর্টের প্রাক্তন বিচারপতি অঞ্জনা প্রকাশ ও সাংবাদিক কুরবান আলি এই জনস্বার্থ মামলাটি করেন। আবেদনকারীদের হয়ে শীর্ষ আদালতে সওয়াল জবাব করছেন কপিল সিব্বল।

হরিদ্বারের ধর্ম সংসদে সাম্প্রদায়িক বার্তা ছড়ানোর ঘটনায় মামলা গ্রহণ করল সুপ্রিম কোর্ট। হরিদ্বারের ঘটনায় নিরপেক্ষ স্বতন্ত্র তদন্ত চেয়ে এই মামলা দায়ের করা হয়েছে সুপ্রিম কোর্টে। হাই কোর্টের প্রাক্তন বিচারপতি অঞ্জনা প্রকাশ ও সাংবাদিক কুরবান আলি এই জনস্বার্থ মামলাটি করেন। আবেদনকারীদের হয়ে শীর্ষ আদালতে সওয়াল জবাব করছেন কপিল সিব্বল। সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতি এনভি রামানার এজলাসে এই মামলাটির শুনানি হয়। সেখানে কপিল সিব্বল অভিযোগ করেন, ‘সত্যমেব জয়তে’ স্লোগানটিকে ‘শাস্ত্রমেব জয়তে’ হিসেবে ব্যবহার করা হয়েছে। পাশাপাশি তাঁর আরও অভিযোগ, ঘটনায় এফআইআর করা হলেও কোনও পদক্ষেপ করা হয়নি পুলিশের তরফে।

কপিল সিব্বল সুপ্রিম কোর্টের বেঞ্চকে বলেন, ‘আমি এই জনস্বার্থ মামলাটি করেছি ১৭ থেকে ১৯ ডিসেম্বরের মধ্যে অনুষ্ঠিত হরিদ্বারের ধর্ম সংসদের প্রেক্ষিতে। আমরা খুব কঠিন সময়ে বাস করি। সেখানে আমেদের দেশের স্লোগান সত্যমেব জয়তকে বদল করে দেওয়া হয়।’ কপিল সিব্বলের এই যুক্তি শুনেই প্রধান বিচারপতি বলেন যে তাঁরা এই মামলাটি গ্রহণ করবেন।

উল্লেখ্য, গত ১৭ থেকে ১৯ ডিসেম্বর উত্তরাখণ্ডের হরিদ্বারের বেদ নিকেতন ধামে ধর্ম সংসদের আয়োজন করা হয়েছিল। ধর্ম সংসদে প্ররোচণামূলক বক্তব্য পেশ করে হিংসার ডাক দিয়ে বিতর্কে জড়িয়েছিলেন উপস্থিত সাধুরা। প্রকাশ্যে কট্টরপন্থার জয়জয়কার দেখা যায় সেই ধর্ম সংসদে। এভাবে প্রকাশ্যে হিংসা ছড়িয়ে দেওয়ার ডাকে সমালোচনার ঝড় উঠেছে বিভিন্ন মহলে। পরে ধর্ম সংসদের নামে হিংসা ছড়ানোর ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ করে দেশের প্রধান বিচারপতি ও প্রধানমন্ত্রীকে চিঠি লিখেছিলেন প্রাক্তন সামরিক কর্তারা। পুলিশ ঘটনার তদন্তে নেমে একাধিক ব্যক্তির নামে এফআইআর করা হলেও পদক্ষেপ করা হয়নি।

বন্ধ করুন