হাইড্রক্সিক্লোরোকুইনিন প্রয়োগের ফলে করোনা রোগীদের মধ্যে মৃত্যুর আশঙ্কা ৩৪% বেশি।
হাইড্রক্সিক্লোরোকুইনিন প্রয়োগের ফলে করোনা রোগীদের মধ্যে মৃত্যুর আশঙ্কা ৩৪% বেশি।

করোনা চিকিৎসায় HCQ ব্যবহারে মৃত্যুর ঝুঁকি বাড়ে, দাবি হার্ভার্ডের গবেষকদের

  • হাইড্রক্সিক্লোরোকুইনিন প্রয়োগে করোনা রোগীদের মধ্যে মৃত্যুর আশঙ্কা ৩৪% বেশি এবং হার্টের রোগ হওয়ার সম্ভাবনা ১৩৭% বাড়ে।

হাসপাতালে ভরতি করোনা রোগীদের ক্ষেত্রে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের বলা করোনার অব্যর্থ দাওয়াইকে মারাত্মক বিপজ্জনক বলে সতর্ক করলেন চিকিৎসা বিজ্ঞানীরা।

ট্রাম্প দাবি করেছিলেন, আদতে ম্যালেরিয়ার ওষুধ হাইড্রক্সিক্লোরোকুইনিন (HCQ) Covid 19 চিকিৎসার মোড় ঘুরিয়ে দেবে। কিন্তু হারভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারতীয় বংশোদ্ভূত অধ্যাপক মনদীপ মেহরার নেতৃত্বাধীন গবেষকদল জানিয়েছেন, ওই ওষুধ প্রয়োগে রোগীর তীব্র হার্ট অ্যাটাক এমনকি মৃত্যুও হতে পারে।

ছয় মহাদেশের ৬৭১টি হাসপাতালের মোট ৯৬,০০০ রোগীর উপরে করা সমীক্ষায় জানা গিয়েছে এই চাঞ্চল্যকর তথ্য। মার্কিন সংবাদমাধ্যম ওয়াশিংটন পোস্টকে অধ্যাপক মেহরা জানিয়েছেন, ইতিমধ্যে বেশ কিছু রোগীর বিপদ ডেকে এনেছে ট্রাম্প প্রশংসিত ওষুধটি। 

গবেষণায় জানা গিয়েছে হাইড্রক্সিক্লোরোকুইনিন প্রয়োগের ফলে করোনা রোগীদের মধ্যে মৃত্যুর আশঙ্কা ৩৪% বেশি এবং হার্টের সমস্যা তৈরি করার সম্ভাবনা ১৩৭% বেশি। 

আবার যে সমস্ত রোগীকে হাইড্রক্সিক্লোরোকুইনিনের সহ্গে অ্যান্টিবায়োটিক দেওয়া হয়েছে, তাঁদের ক্ষেত্রে মৃত্যুর আশঙ্কা আরও ৪৫% বেশি দেখা গিয়েছে বলে জানিয়েছেন গবেষকরা। 

উল্লেখ্য, এর আগে হাসপাতালে ভরতি করোনা রোগীদের এই দুই ওষুধ দেওয়ারই পরামর্শ দিয়েছিলে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প। প্রেসিডেন্টের বাসভবনের দুই কর্মী করকোনা পজিটিভ প্রমাণিত হওয়ার পরে হোয়াইট হাউসের চিকিৎসকের পরামর্শে তিনি নিজে দুই সপ্তাহের কোর্সে এই ওষুধ-জুটি ব্যবহার করতে শুরু করেছেন বলেও জানান ট্রাম্প। গত বৃহস্পতিবার সাংবাদিকদের তিনি জানিয়েছেন, কোর্স শেষ হতে তাঁর আর একদিন বাকি রয়েছে।

 

বন্ধ করুন