বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > 'মুখ বন্ধ রাখুন' গ্রাহকদের কড়া বার্তা HDFC ব্যাঙ্কের, কারণটা জানেন?
'মুখ বন্ধ রাখুন'। এমনই ভাষায় গ্রাহকদের রীতিমতো সতর্কবাণী শোনাল ভারতের সর্ববৃহৎ বেসরকারি ব্যাঙ্ক এইচডিএফসি। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য মিন্ট)
'মুখ বন্ধ রাখুন'। এমনই ভাষায় গ্রাহকদের রীতিমতো সতর্কবাণী শোনাল ভারতের সর্ববৃহৎ বেসরকারি ব্যাঙ্ক এইচডিএফসি। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য মিন্ট)

'মুখ বন্ধ রাখুন' গ্রাহকদের কড়া বার্তা HDFC ব্যাঙ্কের, কারণটা জানেন?

  • আচমকা গ্রাহকদের মুখ বন্ধ রাখতে বলা হল কেন?

'মুখ বন্ধ রাখুন'। এমনই ভাষায় গ্রাহকদের রীতিমতো সতর্কবাণী শোনাল ভারতের সর্ববৃহৎ বেসরকারি ব্যাঙ্ক এইচডিএফসি। তাও একেবারে টুইটারে।

কিন্তু কেন? আচমকা গ্রাহকদের মুখ বন্ধ রাখতে বলা হল কেন? আসলে সম্প্রতি অনলাইনে ব্যাঙ্ক জালিয়াতির সংখ্যা ক্রমশ বাড়ছে। হামেশাই গ্রাহকদের থেকে তথ্য হাতিয়ে নিয়ে ব্যাঙ্কের অ্যাকাউন্ট থেকে টাকা গায়েব করে দেওয়া হচ্ছে। তা থেকে সতর্ক করতেই গ্রাহকদের সেরকম সতর্কবাণী শুনিয়েছে দেশের সর্ববৃহৎ বেসরকারি এইচডিএফসি।

গত বুধবার এইচডিএফসির তরফে টুইটারে বলা হয়, ‘নিজের ফিক্সড ডিপোজিট (এফডি) বা রেকারিং ডিপোজিট (আরডি) অ্যাকাউন্টে কোনও লেনদেন না করা সত্ত্বেও মেসেজ পেয়েছেন? প্রতারকরা এইচডিএফসির ভুয়ো হেল্পলাইন নম্বর ব্যবহার করছে এবং নিজেদের ব্যাঙ্ক সংক্রান্ত তথ্য পাওয়ার জন্য স্ক্রিন-শেয়ার অ্যাপ ডাউনলোড করতে বলছে। তাই প্রতারকরা ফোন করলে #MoohBandRakho (মুখ বন্ধ রাখা) স্বভাবে পরিণত করে নিন।’ বেসরকারি ব্যাঙ্কের তরফে বলা হয়েছে, 'মনে রাখবেন, কখনও অনুমোদিত নয়, এমন থার্ড-পার্টি অ্যাপ আপনাকে কখনও ডাউনলোড করতে বলবে না এইচডিএফসি ব্যাঙ্ক।'

উল্লেখ্য, করোনাভাইরাস পরিস্থিতিতে অনলাইনে ব্যাঙ্ক জালিয়াতির মাত্রা বেড়েছে। প্রতারকদের মূলত নিশানায় থাকছেন কিছুটা প্রবীণ নাগরিকরা, যাঁরা সাধারণ ডিজিটাল লেনদেনে খুব একটা সড়গড় নন। তবে শুধু তাঁরা নয়, নবীন প্রজন্মও জালিয়াতের শিকার হয়েছেন। মূলত নানা অছিলায় ফোন করে ব্যাঙ্কের তথ্য হাতিয়ে নেওয়া হচ্ছে। সেইসঙ্গে নিত্যনতুন পন্থা ব্যবহার করে সেই জালিয়াতি চলছে। সেজন্য বিভিন্ন ব্যাঙ্ক, রিজার্ভ ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়া (আরবিআই) এবং পুলিশের তরফেও মানুষকে সচেতন করা হচ্ছে। কোনওরকম ব্যক্তিগত তথ্য কাউকে না দেওয়ার পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে নিয়মিত।

বন্ধ করুন