বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > কয়লাকাণ্ডে দিল্লিতে অভিষেককে সমন মামলায় রায় সংরক্ষণ রাখল দিল্লি হাইকোর্ট
অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় । ফাইল ছবি।

কয়লাকাণ্ডে দিল্লিতে অভিষেককে সমন মামলায় রায় সংরক্ষণ রাখল দিল্লি হাইকোর্ট

  • তাঁর আইনজীবী কপিল সিব্বল আদালতে জানান, আইন অনুযায়ী কোনও আর্থিক দুর্নীতি মামলায় দিল্লিতে তলব করার ক্ষমতা নেই ইডির।

কয়লা কেলেঙ্কারি মামলায় রায় সংরক্ষণ রাখল দিল্লি হাইকোর্ট। তৃণমূল সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় এবং তার স্ত্রী রুজিরা বন্দ্যোপাধ্যায়কে বারবার দিল্লিতে ইডির তলবকে চ্যালেঞ্জ মামলার শুনানি শেষ হওয়ার পরে রায় সংরক্ষিত রাখে দিল্লি হাইকোর্ট।

এর আগে প্রথমবার ইডির তলবে হাজিরা দেওয়ার পর আর দিল্লিতে ইডির দফতরে হাজরা দেননি অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। তারপর দিল্লির পাটিয়ালা হাউস কোর্টে আবেদন জানিয়েছিল ইডি। সেই সময় নিম্ন আদালত অভিষেক এবং তার স্ত্রীকে সমন পাঠালেও সেই নির্দেশকে চ্যালেঞ্জ করে দিল্লি হাইকোর্টের দ্বারস্থ হন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। বারবার তাদের পক্ষে কলকাতা থেকে দিল্লি যাওয়া সম্ভব নয় বলে আবেদনে জানিয়েছিলেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়।

তাঁর আইনজীবী কপিল সিব্বল আদালতে জানান, আইন অনুযায়ী কোনও আর্থিক দুর্নীতি মামলায় দিল্লিতে তলব করার ক্ষমতা নেই ইডির। এর জন্য জিজ্ঞাসাবাদ করতে ইডিকেই যেতে হবে কলকাতায়। সেখানে ইডির আঞ্চলিক কার্যালয় রয়েছে। সেখানে গিয়েও জিজ্ঞাসাবাদ করা যেতে পারে। এভাবে কোনও ব্যক্তিকে ভারতের যে কোনও জায়গায় তারা তলব করতে পারে না।

অন্যদিকে, কেন্দ্রের সলিসিটর জেনারেল তুষার নেতা তার যুক্তিতে বলেন, এটি আর্থিক দুর্নীতির মামলা। ইডির এক্তিয়ার কোনও থানা বা রাজ্যের মধ্যে সীমাবদ্ধ নয়। কয়লাকাণ্ডে যে আর্থিক দুর্নীতি হয়েছিল সেই টাকা দিল্লিতে এসে সেখান থেকে ব্যাংককে গিয়েছিল। সেই কারণে অভিযুক্তকে দিল্লিতে ডাকা যেতেই পারে। তাঁর আরও যুক্তি, অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় যেহেতু সাংসদ তাই কলকাতার বাসিন্দা হলেও দিল্লিতে তাঁর ঠিকানা রয়েছে। ফাইল তাঁকে অবশ্যই দিল্লিতে তলব করা যেতে পারে। উভয় পক্ষের বক্তব্য শোনার পর মামলার রায় সংরক্ষণ রাখেন বিচারপতি।

বন্ধ করুন