বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > High Court on Road Accident of Pet: দুর্ঘটনায় পোষ্যের মৃত্যু হলে তা IPC-র র‍্যাশ ড্রাইভিং ধারায় বিবেচিত হবে না, জানাল HC

High Court on Road Accident of Pet: দুর্ঘটনায় পোষ্যের মৃত্যু হলে তা IPC-র র‍্যাশ ড্রাইভিং ধারায় বিবেচিত হবে না, জানাল HC

দুর্ঘটনায় পোষ্যের মৃত্যু হলে তা IPC-র র‍্যাশ ড্রাইভিং ধারায় বিবেচিত হবে না, জানাল হাই কোর্ট

২০১৮ সালে এক সড়ক দুর্ঘটনায় এক পোষ্যকে মেরে দেওয়া চালককে মুক্তি দিল কর্ণাটক হাই কোর্ট। আদালত জানিয়ে দিল, আইপিসি-র ব়্যাশ ড্রাইভিংয়ের ধারাটি শুধুমাত্র মানুষের ক্ষেত্রেই প্রযোজ্য।

দুর্ঘটনায় পোষ্য প্রাণী আহত হলে অভিযুক্তকে ভারতীয় দণ্ডবিধির অধীনে র‍্যাশ ড্রাইভিং ধারায় দোষী সাব্যস্ত করা যাবে না। এমনটাই জানাল কর্ণাটক হাই কোর্ট। উচ্চ আদালত বলেছে যে আইপিসির ধারা ২৭৯ (ব়্যাশ ড্রাইভিং) শুধুমাত্র মানুষের আঘাতকে স্বীকৃতি দেয়। উল্লেখ্য, ভারতীয় দণ্ডবিধির ২৭৯ ধারায় কোনও ব্যক্তি দোষী সাব্যস্ত হলে তার ছয় মাস পর্যন্ত জেল বা ১০০০ টাকা পর্যন্ত জরিমানা হতে পারে।

উল্লেখ্য, ২০১৮ সালে এক পোষ্য কুকুরকে গাড়ি চাপা দিয়ে মেরে ফেলেছিলেন বেঙ্গালুরুর বাসিন্দা প্রতাপ কুমার। তাঁর বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধির ২৭৯ ধারায় মামলা হয়েছিল। নিম্ন আদালতে প্রতাপকে দোষী সাব্যস্ত করা হয়।

সেই রায়ের বিরোধিতায় উচ্চ আদালতের দ্বারস্থ হন প্রতাপ। সেখানে তাঁকে স্বস্তি দিলেন বিচারপতি। বিচারপতির কথায়, যদি এই ক্ষেত্রে ব়্যাশ ড্রাইভিংয়ের ধারায় প্রতাপকে দোষী সাব্যস্ত করা হয়, তাহলে ৩০২ ধারায় খুনের মামলাতেও তাঁকে দোষী সাব্যস্ত করতে হয়।

যদিও আদালতে মৃত কুকুরের মালিকের পক্ষ থেকে দাবি করা হয়, সুপ্রিম কোর্ট নিজের রায়তে বলেছিল যে কোনও প্রাণীর থেকেই মানুষ বড় নয়। সব প্রাণীকে সমান চোখে দেখতে হবে এবং সবারই বাঁচার অধিকার রয়েছে। এর প্রেক্ষিতে হাই কোর্ট বলে, সুপ্রিম কোর্টেই সেই পর্যবেক্ষণ পশুদের প্রতি নিষ্ঠুরতা প্রতিরোধ আইনের প্রেক্ষিতে ছিল। এই আবহে কুকুর খুনের দায়ে অভিযুক্ত প্রতাপকে মুক্তি দেয় উচ্চ আদালত।

বন্ধ করুন