বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > Hijab Row: ‘হোলির ছুটির পর’, হিজাব বিতর্কের সুপ্রিম শুনানি কবে? বজায় ধোঁয়াশা
হিজাব বিতর্কের সুপ্রিম শুনানি হবে হোলির ছুটির পর  (ছবি পিটিআই) (HT_PRINT)

Hijab Row: ‘হোলির ছুটির পর’, হিজাব বিতর্কের সুপ্রিম শুনানি কবে? বজায় ধোঁয়াশা

  • মামলাকারীদের আইনজীবী আর্জি জানান যাতে মামলার শুনানি ২১ মার্চ শুরু হয়। এর জবাবে প্রধান বিচারপতির বেঞ্চ বলে, ‘আমাদের একটু সময় দিন।’ 

হিজাব বিতর্ক নিয়ে কর্ণাটর হাই কোর্টের রায়ে অসন্তুষ্ট মামলাকারী পড়ুয়ারা। এর জেরে তাঁরা সুপ্রিম কোর্টের দরজার কড়া নেড়েছেন। কর্ণাটক হাই কোর্ট এর আগে রায় দেয়, হিজাব মুসলিমদের জন্য বাধ্যতামূলক নয়। সেই ক্ষেত্রে স্কুল বা কলেজের ইউনিফর্ম মেনেই পড়ুয়াকে শ্রেণিকক্ষে ঢুকতে হবে। এই রায়কে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে পড়ুয়ারা শীর্ষ আদালতের দ্বারস্থ হন। সেই মামলার শুনানির দিনক্ষণ অবশ্য এখনও ঠিক হয়নি। তবে জানানো হয়েছে হোলির ছুটির পর এই মামলার শুনানি হবে।

এই মামলার শুনানি হবে প্রধান বিচারপতি এনভি রামানার নেতৃত্বাধীন বেঞ্চের সামনেই। এই বিষয়ে প্রধান বিচারপতি বলেন, ‘আমাদের একটু সময় দিন... আমরা হোলির ছুটির পর বিষয়টি দেখছি।’ এদিকে মামলাকারীদের আইনজীবী আর্জি জানান যাতে মামলার শুনানি ২১ মার্চ শুরু হয়। তাঁর বক্তব্য ছিল, শীঘ্রই পরীক্ষা শুরু হবে এবং এই হিজাব বিতর্ক পড়ুয়াদের ভবিষ্যত নষ্ট করতে পারে। এই আবেদনের প্রেক্ষিতে প্রধান বিচারপতির বেঞ্চ ফের জানায়, ‘আমাদের কিছুটা সময় দিন আমরা মামলার দিনক্ষণ জানিয়ে দেব।’

এর আগে কর্ণাটক হাই কোর্টের পূর্ণ বেঞ্চ রায় দেয়, মুসলিম নারীদের হিজাব পরা বাধ্যতামূলক নয়। এর ফলে রাজ্য সরকারের তরফে জারি করা নিষেধাজ্ঞা বহাল রাখার পক্ষেই রায় দেয় উচ্চ আদালত। এই রায়দানের কয়েক ঘণ্টা পরই সুপ্রিম কোর্টে মামলা দায়ের করেন নিবা নাজ নামক এক পড়ুয়া। তাঁর বক্তব্য, উচ্চ আদালত ধর্মের স্বাধীনতা এবং বিবেকের স্বাধীনতার মধ্যকার দ্বিধাবিভক্তি তৈরিতে ভুল করেছে। এখানে আদালত অনুমান করেছে যে যারা ধর্ম অনুসরণ করে তাদের বিবেকের অধিকার থাকতে পারে না।

বন্ধ করুন