বাড়ি > ঘরে বাইরে > প্রিয়াঙ্কা থেকে কমলনাথ, অযোধ্যায় ভূমিপুজোর আগে কংগ্রেস নেতাদের মুখে রাম নাম
সেজে উঠেছে অযোধ্যা (PTI)
সেজে উঠেছে অযোধ্যা (PTI)

প্রিয়াঙ্কা থেকে কমলনাথ, অযোধ্যায় ভূমিপুজোর আগে কংগ্রেস নেতাদের মুখে রাম নাম

সব কংগ্রেসির হৃদয়ে বিরাজমান শ্রীরামচন্দ্র, বলছেন ডিকে শিবকুমার। 

সুপ্রিম কোর্টের রায়ে দীর্ঘ বাগবিতণ্ডার পর, আইনি লড়াইয়ের শেষে অবশেষে তৈরী হচ্ছে রাম মন্দির। অযোধ্যায় এর ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করবেন স্বয়ং প্রধানমন্ত্রী মোদী। বহুদিন ধরে বিজেপির ইস্তাহারে ছিল রাম মন্দির নির্মাণের প্রতিশ্রুতি। ফলে এর থেকে যে রাজনৈতিক ফায়দা তোলার চেষ্টা করবে বিজেপি, তা বলাই বাহুল্য। কিন্তু অত সহজে তাদের ওয়াকওভার দিতে চায় না কংগ্রেস। 

ফলে ভূমিপূজনের দিন কয়েক আগে থেকেই রাম মন্দিরের সমর্থনে নানান বক্তব্য রাখছেন ছোটো বড় কংগ্রেস নেতা। মঙ্গলবার রাম মন্দিরের স্থাপনাকে স্বাগত জানিয়ে বিবৃতি দিয়েছেন প্রিয়াঙ্কা গান্ধী বঢড়া। 

প্রিয়াঙ্কা বলেছেন যে তিনি আশা করবেন এই অনুষ্ঠান যেন জাতীয় ঐক্য, ভ্রাতৃত্ববোধ ও সম্প্রীতির উৎসব হয়ে ওঠে। কংগ্রেস নেত্রী বলেন যে ভগবান রাম সহস্র বছর ধরে ঐক্যের প্রতীক ভারতীয় উপমহাদেশে। তিনি বলেন রাম সাহস ও ঐক্যের প্রতীক, তিতিক্ষার প্রতিভূ। সকলের মধ্যে ভালোটি রাম। এই জন্য তাঁকে মযার্দা পুরুষোত্তম বলা হয়। 

তিনি বলেন যে রাম যেমন সাবরির তেমনই সুগ্রীবের, যেমন কবীরের তেমন তুলসীদাসের তেমনই রায়দাসের। যেমন রাম বাল্মিকীর তেমনই ভাষার। এইভাবে ভগবান রামচন্দ্র যে জাতি, ধর্ম ও অঞ্চলের ঊর্ধ্বে সেটি তুলে ধরেন প্রিয়াঙ্কা গান্ধী। 

অন্যদিকে এদিন হনুমান চালিসার পাঠ রেখেছিলেন মধ্যপ্রদেশের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী কমল নাথ। তিনি বলেন যে ১১টি রুপোর ইঁট পাঠানো হবে অযোধ্যায় মধ্যপ্রদেশ কংগ্রেসের তরফে। রাজীব গান্ধী অস্থায়ী রাম মন্দিরের তালা খুলে এই বৃহৎ মন্দির বানানোর কাজ সোজা করে দেন, সেটা মনে করাতে ভোলেননি কমলনাথ। 

অন্যদিকে কর্নাটকের কংগ্রেস সভাপতি ডিকে শিবকুমার বলেন যে সব কংগ্রেসির হৃদয়ে বিরাজমান শ্রীরামচন্দ্র। রাম মন্দির নির্মাণের অনুষ্ঠানে কংগ্রেসের নেতাদের ডাকা হয়নি, সেই প্রশ্ন করলে এই কথা বলেন শিবকুমার। তিনি বলেন যে আমন্ত্রণ লাগবে না, টিভিতে দেখে নেব। ঘুরিয়ে বিজেপিকে আক্রমণ করে শিবকুমার বলেন যে রাম মন্দির কোনও ব্যক্তিগত সম্পত্তি নয়। 

কংগ্রেসের এই প্রতিক্রিয়া থেকেই স্পষ্ট যে রাম মন্দিরের নির্মাণের পর গৌবলয়ে যাতে বিজেপির ভোট আরও একত্রিত  না হয়ে যায়, তার জন্য ইতিমধ্যেই রণনীতি তেরী দলের। সেই কারণেই রাম মন্দির নির্মাণে রাজীব গান্ধীর ভূমিকার কথা তুললেন কমলনাথ ও দিগ্বিজয় সিংয়ের মতো পোড় খাওয়া নেতা। 

 

বন্ধ করুন