বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > ‘আশঙ্কাবাদী অর্থনীতিবিদদের কথা শুনে শেখ হাসিনা দেশ চালান না'
বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। (ফাইল ছবি, সৌজন্যে শিনহুয়া নিউজ এজেন্সি/পিকচারস অ্যালায়েন্স/ডয়চে ভেলে)

‘আশঙ্কাবাদী অর্থনীতিবিদদের কথা শুনে শেখ হাসিনা দেশ চালান না'

  • ‘খালেদ মুহিউদ্দীন জানতে চায়' টকশোতে এবারের আলোচনার বিষয় ছিল ‘বিদেশি মুদ্রা ও অর্থনীতির সংকট'৷ এবারের টক শোতে অতিথি হিসেবে পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী অধ্যাপক শামসুল আলম ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন পলিসি রিসার্চ ইনস্টিটিউটের নির্বাহী পরিচালক ড. আহসান এইচ মনসুর৷

বাংলাদেশের অর্থনীতি নিয়ে ঘাবড়ে যাওয়ার কোনও কারণ নেই বলে মনে করেন বাংলাদেশের পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী অধ্যাপক শামসুল আলম৷ দেশের বর্তমান পরিস্থিতিকে ‘বৈশ্বিক আরোপিত সংকট' বলেও অভিহিত করেন তিনি৷

‘খালেদ মুহিউদ্দীন জানতে চায়' টকশোতে এবারের আলোচনার বিষয় ছিল ‘বিদেশি মুদ্রা ও অর্থনীতির সংকট'৷ এবারের টক শোতে অতিথি হিসেবে পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী অধ্যাপক শামসুল আলম ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন পলিসি রিসার্চ ইনস্টিটিউটের নির্বাহী পরিচালক ড. আহসান এইচ মনসুর৷

বাংলাদেশের বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ কমে যাওয়র ফলে অর্থনীতিতে সামগ্রিকভাবে কতটা সংকট তৈরি হয়েছে, এমন এক প্রশ্নের জবাবে অধ্যাপক শামসুল আলম বলেন, এ নিয়ে তিনি ঘাবড়ানোর কোনো কারণ দেখছেন না৷

পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘অত ঘাবড়ে যাওয়ার বা আশঙ্কা করার কোনো কারণ নেই৷ আমরা আশঙ্কা সৃষ্টি করতে খুব দক্ষ কিন্তু৷ পদ্মা সেতু নিয়ে আমাদের অনেক আশঙ্কা সৃষ্টি হয়েছিল৷ হবে না, করা যাবে না৷ তো সেই আশঙ্কাবাদী অর্থনীতিবিদদের কথা শুনে প্রধানমন্ত্রী দেশ চালালে আজকে পদ্মা ব্রিজ বাস্তবে রূপ নিতো না৷ কাজেই আশঙ্কার কথা আমি উড়িয়ে দেব।'

তিনি বলেন, ‘অনেক আশঙ্কার কথা আমরা শুনি সর্বত্রই৷ এই আশঙ্কা, ওই আশঙ্কা, এটা হবে না, ওটা হচ্ছে না৷ হিসাব পরিষ্কার, ৪০ বিলিয়নও (মার্কিন ডলারে বাংলাদেশের রিজার্ভ) সঠিক৷ বাকিটা উৎপাদনব্যবস্থায় আছে, যেটি আমাদের সম্পদ সৃষ্টিতে সহায়ক হচ্ছে৷

মেগা প্রকল্পের ঋণ নিয়ে কোনও সমস্যা হবে না, পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রীর এমন দাবির উত্তর দেন ড. আহসান এইচ মনসুর৷ তিনি মনে করেন, অনেক ক্ষেত্রেই সবদিক বিবেচনা না করেই সরকার প্রকল্প হাতে নেয়৷ তিনি বলেন, ‘প্রত্যেকটা প্রকল্পেরই জাস্টিফিকেশন থাকা উচিত৷ সেটার অর্থনৈতিক জাস্টিফিকেশন থাকে, সামাজিক, রাজনৈতিক এবং সক্ষমতার সাথে সেটা কতখানি যৌক্তিক সে বিষয়গুলো বিবেচনা করেই প্রকল্পগুলো নেয়ার প্রয়োজন আছে৷'

তিনি বলেন, ‘‘আমাদের মতো অনেক দেশেই যে সমস্যাটা হয়, অনেক সময় প্রকল্পগুলো নেয়া হয় কিন্তু সবকিছু বিবেচনা হয়তো করা হয় না৷ যেমন আমরা বলতে পারি রূপপুরের ক্ষেত্রে অনেককিছুই করা হয়নি৷ এটার এনভায়রনমেন্ট অ্যাসেসমেন্ট করা হয়নি, ইন্টার্নাল রেট অব রিটার্ন এবং প্রকল্পের ব্যয়ভার প্রকল্পের উৎপাদনের তুলনায় বেশি৷ সেটা নিয়ে অনেক প্রশ্ন করতে পারেন, কিন্তু প্রকল্প শুরু হয়ে গেছে এখন আর কিছু করার নেই৷ এ বোঝাটা আমাদের টানতেই হবে''

পদ্মাসেতুর ওপর দিয়ে রেললাইন করার সিদ্ধান্ত বেশ ভালো হলেও রেলওয়ের অন্য নানা প্রকল্প সঠিকভাবে সবকিছু বিবেচনায় রেখে করা হয়নি বলেও উল্লেখ করেন ড. আহসান এইচ মনসুর৷ তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশ রেলওয়ে এমন একটা প্রতিষ্ঠান, যে প্রতিষ্ঠান কোনোদিন কোনো ঋণ শোধ করতে পারে না৷ এবং এ প্রতিষ্ঠান কোনোদিন লাভ করে নাই এখন পর্যন্ত পঞ্চাশ বছরের ইতিহাসে৷'

আর্থিক সংকটের কারণে বাংলাদেশ সরকার ঘাবড়ে গেছে কিনা, এমন প্রশ্নের উত্তরে পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘বাংলাদেশের অর্থনৈতিক রূপান্তরে যে ভূমিকা রাখতে পেরেছে আওয়ামী লিগ সরকার, তাতে সরকার আস্থাশীল৷ এই শঙ্কাটা আমরা কাটিয়ে উঠব, সুন্দরভাবে কাটিয়ে উঠব৷'

ড. আহসান এইচ মনসুরও মনে করেন বর্তমানে যে অর্থনৈতিক অস্থিরতা রয়েছে, সেটিকে ‘সংকট' না বলে ‘সমস্যা' বলাই শ্রেয়৷ সময়োপযোগী সিদ্ধান্ত নিলে এটি কাটিয়ে ওঠা সম্ভব বলেও মনে করেন তিনি৷

বন্ধ করুন