বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > বোনাস, লাকি ড্র, Work from Homeএ Zerodha'র কর্মীদের সতেজ থাকার গোপন রহস্য ফাঁস
Zerodha'র প্রতিষ্ঠাতা সিইও নিথিন কামাথ (ফাইল ছবি)
Zerodha'র প্রতিষ্ঠাতা সিইও নিথিন কামাথ (ফাইল ছবি)

বোনাস, লাকি ড্র, Work from Homeএ Zerodha'র কর্মীদের সতেজ থাকার গোপন রহস্য ফাঁস

  • সিইও নিথিন কামাথের পরিকল্পনায় ওয়ার্ক ফ্রম হোমেও একেবারে চাঙা হয়ে গিয়েছেন Zerodhaর কর্মীরা।

 কোভিড ঠেকাতে গোটা দেশ জুড়ে লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছিল। কার্যত ঘরবন্দি করে ফেলা হয়েছিল দেশবাসীকে। অধিকাংশ অফিসেই শুরু হয়েছিল কাজের এক নতুন পদ্ধতি, ওয়ার্ক ফ্রম হোম। বর্তমানে পরিস্থিতির কিছুটা উন্নতি হচ্ছে। সেই বিধির কড়াকড়ি কিছুটা শিথিল হয়েছে। তবে ঘর থেকে কাজ এখনও চলছে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে। কিন্তু কর্মীদের একাংশের দাবি, ওয়ার্ক ফ্রম হোমের নেগেটিভ দিকও রয়েছে। পেশাগত জীবন আর ব্যক্তিগত জীবন সব কেমন একাকার হয়ে যায়। এর সঙ্গেই অস্বাস্থ্যকর খাওয়াদাওয়া, মোটা হওয়ার প্রবণতা এসব তো আছেই। তবে এনিয়ে আর মন খারাপের কিছু নেই। Zerodha র নাম শুনেছেন অনেকেই। বেঙ্গালুরুরু ফিনান্স কোম্পানি। শেয়ার বেচাকেনায় সহায়তা করে গ্রাহককে। সেই কোম্পানির প্রতিষ্ঠাতা সিইও নিথিন কামাথের পরিকল্পনায় ওয়ার্ক ফ্রম হোমেও একেবারে চাঙা হয়ে গিয়েছেন Zerodhaর কর্মীরা। এনিয়ে টুইটও করেছেন তিনি।

 

কামাথ লিখেছেন, অন্যান্য প্রতিষ্ঠানের মতো আমাদের কর্মীরাও ওয়ার্ক ফ্রম হোমে শারীরিক পরিশ্রম কমে যাওয়ায়, কাজের পরিবেশের ভারসাম্য নষ্ট হওয়ায়, ডায়েটের সমস্যার জন্য কেমন যেন আন হেলদি হয়ে যাচ্ছিলেন। আর তাদেরকে চাঙা করতেই নয়া কৌশল প্রয়োগ করা হয়েছিল। আর তাতে একেবারে ম্যাজিকের মতো কাজ হয়েছে। কী সেই গোপন রহস্য। সেটাও ফাঁস করেছেন  কামাথ।

তিনি লিখেছেন, ১২ মাসের একটি সুস্বাস্থ্যের টার্গেট তৈরি করা হয়েছিল। প্রতি মাসে সেটি আপডেট করার জন্যও বলা হয়েছিল। যারা লক্ষ্যে পৌঁছতে পারবেন তাদের জন্য এক মাসের স্যালারি বোনাস দেওয়ার কথাও ঘোষণা করা হয়। এমনকী ১০ লক্ষ টাকার লাকি ড্রয়ের ব্যবস্থাও করা হয়েছিল। আর তাতে যে কাজ হয়েছে তাতে উৎসাহিত গোটা সংস্থা। এর সঙ্গেই সুস্বাস্থ্য থাকার জন্য কর্মীদের কর্মদক্ষতা যে বেড়েছে এটাও প্রমাণিত হয়েছে। এই উদ্যোগকে আগামী দিনেও চালিয়ে নিয়ে যাওয়ার পরিকল্পনা নিয়েছে সংস্থা। জানিয়েছেন জেরোধার সিইও নিথিন কামাথা। আর জেরোধা মানেই তো বাধাহীন। আসলে অতিমারিতেও নানা প্রতিকূলতার মধ্যেও নতুন পথ খুঁজে পেয়েছে সংস্থা।

 

বন্ধ করুন