বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > ওড়িশায় লাইনচ্যুত হল যশবন্তপুর-হাওড়াগামী দুরন্ত এক্সপ্রেস, বাঁচলেন যাত্রীরা
দুরন্ত এক্সপ্রেস। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য টুইটার @srn_21850)

ওড়িশায় লাইনচ্যুত হল যশবন্তপুর-হাওড়াগামী দুরন্ত এক্সপ্রেস, বাঁচলেন যাত্রীরা

ঠিক কী কারণে এই দুর্ঘটনা ঘটল, তা খুঁজে বের করতে একটি উচ্চ পর্যায়ের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।

‌বড়সড় দুর্ঘটনার হাত থেকে অল্পের জন্য রক্ষা পেল হাওড়াগামী দুরন্ত এক্সপ্রেস। ওড়িশার হরিদাসপুরে লাইনচ্যুত হয়ে যায় ট্রেনটি। গতি কম থাকায় দুর্ঘটনা বড় আকার নেয়নি।

জানা যায়, শুক্রবার সকাল ১১টা ১৯ মিনিটে যশবন্তপুর থেকে হাওড়ার উদ্দেশs ছাড়ে দুরন্ত এক্সপ্রেস। ট্রেনটি যখন ওড়িশার খুরদার কাছে হরিদাসপুর রেল ইয়ার্ড দিয়ে যাচ্ছিল, তখন দুপুর ২টো ৩৫ মিনিট নাগাদ ট্রেনের সামনের দিকের দুটি চাকা লাইনচ্যুত হয়ে যায়। লাইনচ্যুত হয়ে যায় ইঞ্জিন ও লাগেজ ভ্যান।

তবে জানা যাচ্ছে, যাত্রীরা সুরক্ষিতই রয়েছেন। তাঁদের কোনও ক্ষতি হয়নি। ইস্ট-কোস্ট রেলের মুখ্য জনসংযোগ আধিকারিক বিশ্বজিৎ সাহু জানান, যাত্রীরা সুরক্ষিতই রয়েছে। সমস্ত প্যাসেঞ্জার কোচকে অন্য একটি ইঞ্জিনের সঙ্গে জুড়ে দিয়ে গন্তব্যস্থলের উদ্দেশে পাঠানো হবে। রেলের তরফে একটি টিমকে পাঠানো হয়েছে। তাড়াতাড়ি পরিষেবা স্বাভাবিক করার চেষ্টা করা হচ্ছে। এই ঘটনার জন্য খড়গপুর থেকে ভুবনেশ্বর মেন লাইনে ট্রেন পরিষেবা স্বাভাবিক থাকবে। কোনও ব্যাঘাত ঘটবে না।

রেল সূত্রে খবর, কর্তব্যে গাফিলতির জন্য রেলের চারজন আধিকারিককে সাসপেন্ড করা হয়েছে। সাসপেন্ড হওয়া আধিকারিকদের মধ্যে একজন সিনিয়র সেকশন ইঞ্জিনিয়ার, একজন জুনিয়র ইঞ্জিনিয়ার ও দু'জন রেলের কর্মী রয়েছে। ঠিক কী কারণে এই দুর্ঘটনা ঘটল, তা খুঁজে বের করতে একটি উচ্চ পর্যায়ের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। খুরদা রোডের ডিভিশনাল রেলওয়ে ম্যানেজার সহ উচ্চ পর্যায়ের রেল আধিকারিকরা পরিস্থিতি পর্যালোচনা করতে ঘটনাস্থলে গিয়েছেন।

বন্ধ করুন