বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > HTLS 2021: ‘কোনও বিধায়ক কংগ্রেস ছাড়ছেন না’, ক্যাপ্টেন-শাহ ‘বন্ধুত্ব’ নিয়ে তোপ চান্নির
পঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী চরণজিত্ সিং চান্নি (পিটিআই) (PTI)
পঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী চরণজিত্ সিং চান্নি (পিটিআই) (PTI)

HTLS 2021: ‘কোনও বিধায়ক কংগ্রেস ছাড়ছেন না’, ক্যাপ্টেন-শাহ ‘বন্ধুত্ব’ নিয়ে তোপ চান্নির

  • চান্নি অভিযোগ করেন যে কংগ্রেসে থাকাকালীনই অমরিন্দর সিং জোটের আলোচনা অমিত শাহের সঙ্গে।

চরণজিত্ সিং চান্নি পঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী হওয়ার পরই তাঁকে ‘গুড বয়’ বলেছিলেন ক্যাপ্টেন অমরিন্দর সিং। তবে দলের প্রতি আনুগত্য রেখে ক্যাপ্টেনকে রেয়াত করছেন না পঞ্জাবের প্রথম দলিত মুখ্যমন্ত্রী। এদিন হিন্দুস্তান টাইমস লিডারশিপ সামিটে চান্নি বলেন, ‘দল থেকে কী না পেয়েছেন অমরিন্দর সিং? তিনি বিধায়ক, সাংসদ, মুখ্যমন্ত্রী হয়েছেন। তাঁর পরিবারের সদস্যরা বড় বড় পদ পেয়েছেন। এখন তিনি ডেলিভার করতে পারছে না কাজ। দল কী করতে পারত? হয় তাঁর অফিস বন্ধ করে দেওয়া হত নয়ত পার্টিকে তাঁর নিজের দোকান বন্ধ করতে হত।'

চান্নি অভিযোগ করেন যে অমরিন্দর সিং এবং অমিত শাহের মধ্যে জোটের আলোচনা বহুদিন ধরে চলছিল। এমনকি কংগ্রেসে থাকাকালীনও নাকি ক্যাপ্টেন শাহের সঙ্গে আলোচনা চালিয়ে যাচ্ছিলেন বলে দাবি চান্নির। উল্লেখ্য, কংগ্রেসের অন্দরে যখন ক্যাপ্টেন বনাম সিধু সংঘাত চরমে তখনই চান্নিকে মুখ্যমন্ত্রীর গদিতে বসায় কংগ্রেস হাইকমান্ড। 

পঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী এদিন বলেন, ‘আমাদের আগের মুখ্যমন্ত্রী মাত্র ২ ঘণ্টা কাজ করতেন। আর আমি ২ ঘণ্টা মাত্র ঘুমোই। তিনি খুব দেরি করে ঘুম থেকে উঠতেন। মানুষের মনে প্রশ্ন ছিল কখন তিনি ঘুমোতে যেতেন।’ তিনি আরও বলেন, ‘আমি যদি মুখ্যমন্ত্রী হই তবে আমার কাছে সকলের আসা কি বন্ধ করে দেওয়া উচিত?  আমি সাধারণ মানুষের সঙ্গে কথা বলতে ভালোবাসি। আমি বাড়ির সামনে তাঁবু করেছি। সেখানে সাধারণ মানুষ এসে আমার সঙ্গে কথা বলতে পারেন।’ কিন্তু মুখ্যমন্ত্রী বদল করতে এত দেরি হল কেন?  চরনজিৎ সিং জানিয়েছেন, সব কিছুরই স্থান, কাল আছে। ওরকম একজন শক্তিশালী মানুষকে সরাতে সময় লাগে। পদ ছাড়ার আগেও বিজেপির সঙ্গে ক্যাপ্টেনের যোগাযোগ ছিল বলে অভিযোগ করেন চান্নি। 

 

 

 

 

বন্ধ করুন