বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > না জানিয়ে কার্গিল যুদ্ধে যাওয়ার জন্য মুশারফকে বরখাস্ত করতাম-ইমরান
ইমরান খান (AP)
ইমরান খান (AP)

না জানিয়ে কার্গিল যুদ্ধে যাওয়ার জন্য মুশারফকে বরখাস্ত করতাম-ইমরান

তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফ বারবার বলেছেন যে ১৯৯৯ সালে কার্গিল যুদ্ধের কথা তিনি জানতেন না।

অনেক দিন ধরেই ইমরান খানের সঙ্গে পাকিস্তানের সেনাবাহিনীর সম্পর্ক নিয়ে জল্পনা চলছে। আর্মির প্রচ্ছন্ন সমর্থন নিয়ে ক্ষমতায় আসেন ইমরান। কিন্তু এখন তারা ইমরানকে সরাতে চাইছে এরকম জল্পনা চলছে। এর মধ্যেই সেনা ও সরকারের সম্পর্ক নিয়ে বিস্তারিত জানালেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী। অতীতের পাতা হাতড়ে কার্গিলের সময় তিনি প্রধানমন্ত্রী থাকলে কি করতেন, সেটাও জানালেন ইমরান খান 

ইমরান খান বলেন যে তিনি যদি কার্গিলের সময় প্রধানমন্ত্রী থাকতেন তাহলে পারভেজ মুশারফকে বরখাস্ত করতেন। তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফ বারবার বলেছেন যে ১৯৯৯ সালে কার্গিল যুদ্ধের কথা তিনি জানতেন না। তাঁকে না জানিয়েই মুশারফ কার্গিলে আক্রমণ করেছিলেন বলে নওয়াজ শরিফ দাবি করেন। সেরকম হলে তিনি রেয়াত করতেন না বলে দাবি করেছেন ইমরান খান। 

যদি চর সংস্থা আইএসআই-এর প্রধান তাঁকে ইস্তফা দিতে বলেন, তাঁকেও তিনি বরখাস্ত করতেন বলে জানান খান। এটিও নওয়াজ শরিফ প্রসঙ্গে তিনি বলেছিলেন। প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী বলেছিলেন যে ২০১৪ সালে ইমরানের বড় বিক্ষোভের সময় আইএসআই প্রধান তাঁকে ইস্তফা দিতে আর্জি জানিয়েছিলেন। 

ইমরান খান সেনার দ্বারা নিয়ন্ত্রিত বলে অভিযোগ করেছিলেন নওয়াজ শরিফ। ইমরান বলেন যে মুসলিম বিশ্বে এত অশান্তি হলেও পাকিস্তানে সব শান্ত। এর জন্য তিনি সেনাকে কৃতিত্ব দেন। পাকিস্তানের ৭০ বছরের মধ্যে এখনও কোনও প্রধানমন্ত্রী পুরো মেয়াদ পূর্ণ করতে পারেননি। আর্মির শাসন চলেছে বহু দশক ধরে। কিন্তু ইমারনের দাবি সে সব এখন অতীত। সময়ের সঙ্গে সঙ্গে সেনাও এখন বদলেছে। 

করোনা, ভারতের সঙ্গে সম্পর্ক, করতারপুর করিডর সব বিষয়ে সেনা ও সরকার সহযোগিতা করে কাজ করছে বলে দাবি করেন ইমরান খান। তাঁর কথায়, গত ৭০ বছর মধ্যে এত ভালো সমন্বয় ছিল না সেনা ও সরকারের মধ্যে। 

বন্ধ করুন