গঙ্গা নদী পাটনার কাছে  (PTI)
গঙ্গা নদী পাটনার কাছে  (PTI)

করোনার চিকিত্সায় গঙ্গাজলের ব্যবহার? জলশক্তি মন্ত্রকের পরীক্ষার প্রস্তাব নাকচ

সেরকম কোনও প্রমাণ নেই, বলছে আইসিএমআর। 

গঙ্গাজল দিয়ে করোনা রোগীদের চিকিত্সা সম্ভব কিনা, সেই বিষয় ক্লিনিকাল ট্রায়াল করার প্রস্তাব প্রত্যাখান করল Indian Council for Medical Research (ICMR)। এই প্রস্তাব এসেছিল কেন্দ্রীয় সরকারের জলশক্তি মন্ত্রকের থেকে। কিন্তু আইসিএমআর জানিয়েছে, তাদের আরও বৈজ্ঞানিক তথ্য লাগবে এই গবেষণায় হাত দেওয়ার আগে। 

আইসিএমআর-এর ইভ্যালুয়েশন অফ রিসার্চ প্রপোজাল কমিটির প্রধান ডক্টর গুপ্তা জানিয়েছেন এই মুহূর্তে তেমন কোনও পোক্ত বৈজ্ঞানিক প্রমাণ নেই গঙ্গাজল দিয়ে করোনা চিকিত্সার ক্লিনিকাল ট্রায়াল শুরু করার। 

ন্যাশনাল মিশন ফর ক্লিন গঙ্গা (NMCG) জানিয়েছে যে অনেকের থেকে তারা প্রস্তাব পেয়েছে করোনাভাইরাসের জন্য নদীর জল ব্যবহার করা যায় কিনা, সেটা পরীক্ষা শুরু করার জন্য। সেই অনুসারে প্রস্তাব পাঠানো হয় আইসিএমআর-এর কাছে। 

গুপ্তা, যিনি আগে AIIMS এর ডিরেক্টর জানিয়েছেন যে এই মুহূর্তে আরও বেশি ডেটা, প্রুফ অফ কনসেপ্ট ও ব্যাকগ্রাউন্ড হাইপোথেসিস দরকার। এটি জলশক্তি মন্ত্রককে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে। National Environmental Engineering Research Institute (NEERI) জানিয়েছে গঙ্গার জলে ভাইরাস বিরোধী কোনও শক্তি আছে, এমন কোনও প্রমাণ নেই। 

NMCG জানিয়েছে যে একটি প্রস্তাব ছিল যে গঙ্গার জলে নিনজা ভাইরাস আছে। অন্য একটি প্রস্তাবের দাবি ছিল যে বিশুদ্ধ গঙ্গা জলে বিশেষ ইম্যুনিটি আছে যা ভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়তে শক্তি দেবে। তৃতীয় একটি প্রস্তাব ছিল গঙ্গার জল আদৌ ভাইরাস বিরোধী কিনা, সেই নিয়ে বিস্তারিত গবেষণা করা হোক। এখনও পর্যন্ত জলশক্তি মন্ত্রক সরকারি ভাবে আইসিএমআরের থেকে কিছু শোনেনি তাদের প্রস্তাবের বিষয়। 

বন্ধ করুন