বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > আশ্রমেই নদীর জল এনেছি,হিন্দু রাষ্ট্র না হলে নাক ডুবিয়ে জলসমাধি, হুঁশিয়ারি সাধুর
জারে রাখা নদীর জল দেখিয়ে হুঁশিয়ারি মহাত্মার (সংগৃহীত )
জারে রাখা নদীর জল দেখিয়ে হুঁশিয়ারি মহাত্মার (সংগৃহীত )

আশ্রমেই নদীর জল এনেছি,হিন্দু রাষ্ট্র না হলে নাক ডুবিয়ে জলসমাধি, হুঁশিয়ারি সাধুর

  • এর আগেও তিনি প্রধানমন্ত্রী ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে চিঠি দিয়ে হিন্দু রাষ্ট্র তৈরির দাবি জানিয়েছিলেন। এমনকী মৃত্যু বরণের জন্য চিতাতেও উঠে পড়েছিলেন।

হিন্দু রাষ্ট্র তৈরি করতে হবে। এই দাবিকে সামনে রেখে এবার মহাত্মা পরমহংস আশ্রমে এনে রাখা সরযু নদীর জলে জল সমাধির হুঁশিয়ারি দিলেন। এদিকে তাঁর এই হুঁশিয়ারির জেরে নড়েচড়ে বসেছে পুলিশ প্রশাসন। শনিবার রাত ১২টাতে তিনি জল সমাধিতে যাবেন বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছেন। তিনি দাবি করেছিলেন ২রা অক্টোবরের মধ্যে ভারতকে হিন্দু রাষ্ট্র হিসাবে ঘোষণা করতে হবে। না করলে তিনি সরযূ নদীতেই আত্মবলিদান দেবেন। একথা জেনে অযোধ্যায় তাঁর আশ্রমের সামনে বিপুল পুলিশ বাহিনী মোতায়েন করা হয়। এরপর তিনি যাতে নদীতে যেতে না পারেন সেকারনে তাঁকে হাউজ অ্যারেস্ট করা হয়। কিন্তু তাঁর দাবি নদীর জলই আশ্রমে এনে রেখেছি। ভারতকে হিন্দু রাষ্ট্র হিসাবে ঘোষণা না করলে সেই জলেই নাক ডুবিয়ে জল সমাধিতে যাব।

একটি জারে রাখা নদীর জল দেখিয়ে তিনি জানিয়েছেন, ‘২রা অক্টোবরের মধ্যে ভারতকে হিন্দু রাষ্ট্র হিসাবে ঘোষণা করার দাবি করেছিলাম। এই ঘোষণার পরই প্রশাসন আমায় গৃহে অন্তরীণ করে রেখেছে। তবে আমি আশ্রমেই নদীর জল এনে রেখেছি। সেই জলেই জলসমাধিতে যাব। দেখি ভগবান কৃপা করলে আমার ইচ্ছা পূরণ হবে।’ 

এদিকে রবিবার তপস্বী ছাউনিতে সনাতন ধর্মসংসদের আয়োজন করা হয়েছে। সেখানেও হিন্দু রাষ্ট্র তৈরি নিয়ে আলোচনা হবে। এদিকে মহাত্মার দাবি, কেন্দ্রীয় সরকার দাবি পূরণের ব্যবস্থা না করলে জল সমাধিতেই যাব। এদিকে এর আগেও তিনি প্রধানমন্ত্রী ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে চিঠি দিয়ে হিন্দু রাষ্ট্র তৈরির দাবি জানিয়েছিলেন। এমনকী মৃত্যু বরণের জন্য চিতাতেও উঠে পড়েছিলেন। পরে পুলিশ কোনওরকমে তাঁকে নামায়। 

 

বন্ধ করুন